সিসি ক্যামেরার ফুটেজে রক্ষা পেলেন ব্যবসায়ী

নিউজ ডেস্ক: সিলেটে সিসি ক্যামেরা ত্রাতা হলো ব্যবসায়ীর। গাঁজা দিয়ে ফাঁসানোর চেষ্টা সিসি ক্যামেরা ফুটেজে রেকর্ড হওয়ায় কবির আহমদ নামের মুদি দোকানিকে যেতে হয়নি চৌদ্দ শিকের ভেতর। দোকানে গাঁজার পুটলা রেখে যায় জনৈক ব্যক্তি। এরপর অভিযোগ পেয়ে আটক করতে আসে পুলিশ।

গত বৃহম্পতিবার সন্ধ্যায় দক্ষিণ সুরমার কামালবাজারের মা স্টোরে এ ঘটনাটি ঘটলেও ভাইরাল হয় রোববার।

দোকান মালিক কবির আহমদ জানান, ওইদিন সন্ধ্যায় কামাল বাজার ফাঁড়ি পুলিশের ইনচার্জ সাইদুল ইসলামের নেতৃত্বে একদল পুলিশ তার দোকানে হানা দেয়। তারা ওই ব্যবসায়ীকে বলেন, দোকান তল্লাশি করবো। কিন্তু দোকানে তল্লাসী না করে নির্দিষ্ট একটি খোলা কার্টনে হাত দিয়ে গাঁজার পুটলাটি হাতে নেন এবং তাকে তাদের সঙ্গে যেতে বলেন।

ঘটনাটি জানতে পেরে বাজারের ব্যবসায়ীরা জড়ো হন। তিনি পুলিশকে দোকানের সিসি ক্যামেরা খতিয়ে দেখতে বলেন। তাতে গড়িমসি করে পুলিশ।

বাজার বণিক সমিতির সভাপতি সেলিম আহমদ বলেন, আমরা ঘটনাটি জানতে পেরে বাজারের ব্যবসায়ীরা জড়ো হই। ঘটনাটি সাজানো বুঝতে পারি।

তিনি বলেন, ব্যবসায়ীদের চাপের মুখে পুলিশ সিসি ক্যামেরা ফুটেজ দেখে। তাতে দেখা যায়, প্রায় পঞ্চাশোর্ধ্ব এক বৃদ্ধ প্যান্টের পকেট থেকে নীল রঙের একটি পুটলা কৌশলে ওই কার্টনে ফেলে রাখেন।

সিসি ফুটেজ দেখতে পেয়ে পুলিশের ওই কর্মকর্তা দু:খ প্রকাশ করে বলেন, আমরা ফোনে অভিযোগ পেয়ে এসেছি।

এ বিষয়ে দক্ষিণ সুরমা থানার কামাল বাজার ফাঁড়ির ইনচার্জ সাইদুল ইসলামের সঙ্গে কথা বলতে চাইলে তিনি অনীহা প্রকাশ করেন।

এ বিষয়ে সিলেটের দক্ষিণ সুরমা থানার ওসি খায়রুল ফজল বলেন, ঘটনাটি পুরো সাজানো ছিল। ৯৯৯ থেকে ফোন করে পুলিশকে এ বিষয়ে অবহিত করা হয়। যে লোকটি গাঁজা রেখেছে, তাকে খোঁজে বের করার চেষ্টা করছে পুলিশ। সাজানো এ ঘটনার বিষয়ে পুলিশ কমিশনারকেও অবহিত করা হয়েছে। তবে এ বিষয়ে দোকান মালিক কোনো অভিযোগ দেননি।

তিনি বলেন, কেউ হয়তো কবির আহমদকে ফাঁসানোর জন্যই এমন নিন্দনীয় কাজ করেছে। বিষয়টি গুরুত্ব দিয়ে খতিয়ে দেখছেন তারা।

এ বিভাগের অন্যান্য