গাজায় ইসরাইলি কার্যকলাপের তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন মালালা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক ঃ

 

গাজায় ইসরাইলি হামলার শিকার ফিলিস্তিনিদের প্রতি আবারো সমর্থন জানালেন শান্তিতে নোবেলজয়ী মালালা ইউসুফজাই।

গাজায় ইসরাইলি কার্যকলাপের তীব্র নিন্দা জানিয়ে মালালা বলেছেন, গাজায় যুদ্ধবিরতি জরুরি ও প্রয়োজনীয়। কারণ আমরা আর লাশ দেখতে চাই না। বিদ্যালয়ে বোমাবর্ষণ ও ক্ষুধার্ত শিশুদের দেখতে চাই না।

বুধবার (২৪ এপ্রিল) রাতে ইনস্টাগ্রামে শেয়ার করা পোস্টে গাজায় ইসরাইলি কার্যকলাপের প্রতি এভাবেই নিন্দা জানান তিনি। পাকিস্তানের সংবাদমাধ্যম ডন এ খবর জানিয়েছে।

পোস্টে মালালা বলেন, আমি এখানে বলতে চাই- গাজার মানুষের প্রতি আমার সমর্থন নিয়ে কোনো সংশয় নেই। ছয় মাসের বেশি সময় ধরে গাজায় ফিলিস্তিনি জনগণের ওপর নিরলস নৃশংসতা দেখছি আমরা। এ সপ্তাহে গাজার নাসের ও আল-শিফা হাসপাতালে আবিষ্কৃত গণকবর ফিলিস্তিনিদের সঙ্গে হওয়া বর্বরতার প্রমাণ।

মালালা বলেন, আমি ইসরাইল সরকারের আন্তর্জাতিক আইনের লঙ্ঘন ও যুদ্ধাপরাধের নিন্দা আগেও জানিয়েছি, ভবিষ্যতেও জানাব। এছাড়া গাজায় যুদ্ধবিরতি ও জরুরি মানবিক সহায়তা নিশ্চিত করতে বিশ্ব নেতাদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

সাবেক মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিলারি ক্লিনটনের সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রে ভোটাধিকার আন্দোলনের ওপর একটি ব্রডওয়ে মিউজিক্যাল প্রোগ্রাম তৈরির খবর প্রকাশিত হওয়ার পর ব্যাপক সমালোচনার মুখে পড়েন মালালা। এমনকি ফিলিস্তিনের প্রতি সমর্থন নিয়ে নিজ দেশ পাকিস্তানেই তার বিরুদ্ধে বিতর্ক ছড়িয়ে পড়ে।

হিলারি যেহেতু ইসরাইলপন্থি হিসেবে পরিচিত, তাই বিতর্ক ছড়ায়, মালালাও ফিলিস্তিনিদের প্রতি তার সমর্থন থেকে সরে এসেছেন। মানবাধিকার কর্মী হিসেবে তার গ্রহণযোগ্যতা প্রশ্নের মুখে পড়ে। কারণ ব্রডওয়ের ওই গীতিনাট্য সহ-প্রযোজনা করেছেন মালালা ও হিলারি। এমন বিতর্কের মুখে অবশেষে বাধ্য হয়েই নিজের অবস্থান স্পষ্ট করেন মালালা।

এ বিভাগের অন্যান্য