কদমতলীতে যুবককে কুপালো ছিনতাইকারীরা

নিউজ ডেস্ক:  সিলেট নগরীর কদমতলী থেকে সিএনজিচালিত অটোরিকশায় ওঠা যাত্রীবেশী ৪ ছিনতাইকারীর কবলে পড়ে গুরুতর আহত হয়েছে রিফাত আহমদ (১৬) নামের এক কিশোর।

বৃহস্পতিবার কদমতলীর অদূরে সিলেট-জকিগঞ্জ সড়কের পালপুর এলাকায় এ ঘটনাটি ঘটে। এ ঘটনায় ভাগ্যক্রমে বেঁচে যাওয়া ওই কিশোর গোলাপগঞ্জ উপজেলার হাজিপুর লামাপাড়া গ্রামের বশির উদ্দিনের ছেলে।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান- বৃহস্পতিবার রাত ৯ টার দিকে কদমতলী থেকে গোলাপগঞ্জ নিজে বাড়িতে যাওয়ার উদ্দেশ্যে অটোরিকশায় ওঠে রিফাত।

সে সহ ওই অটোরিকশায় যাত্রী ছিল আরো ৪ জন। অটোরিকশাটি গন্তব্যের দিকে রওয়ানা দিয়ে শহরতলীর পালপুর নামক এলাকায় গেলে পেছনের সিটে রিফাতের দুপাশে বসা দুই ছিনতাইকারী তার গলায় ছুরি ধরে সাথে থাকা সবকিছু দিয়ে দিতে বলে। এ সময় রিফাত জোরাজুরি করলে ছিনতাইকারীরা তার গলায়, বুকে, পিঠে ছুরি দিয়ে কোপায়।

একপর্যায়ে রিফাত তার সাথে থাকা ৫৫ টাকা বের করে দিলে ছিনতাইকারীরা তাকে রাস্তায় ফেলে দিয়ে দ্রুত পালিয়ে যায়। এরপর সে রক্তাক্ত অবস্থায় পালপুর বাজারের ব্যবসায়ীদের আশ্রয়ে গেলে তারা ৯৯৯ নম্বরে পুলিশ কল করেন।

খবর পেয়েই মোগলাবাজার থানার সহকারী কমিশনার (এসি) পলাশ রঞ্জন দে এর নেতৃত্বে ঘটনাস্থলে আসে পুলিশ। পরে তারা আহত রিফাতকে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে।

এ ব্যপারে এসি পলাশ রঞ্জন দে জানান- রিফাতের অবস্থা গুরুতর। তার শরীরে অস্ত্রোপচার চলছে। সে সুস্থ হলে ছিনতাইকারীদের ধরতে তাকে নিয়ে অভিযানে নামবে পুলিশ। কোনো অবস্থায় এদেরকে ছাড় দেয়া হবে না।

এদিকে ওই অটোরিকশার চালককেও ছিনতাইকারীদের সহযোগী হিসেবে সন্দেহ করছে রিফাত। সে জন্য আপাতত অটোরিকশার চালকও সন্দেহের তালিকায় রয়েছে বলে জানান এসি পলাশ রঞ্জন দে।

এ বিভাগের অন্যান্য