জনগণের সংকটময় মুহূর্তে আওয়ামী লীগ পাশে থাকে : হানিফ

সিলেটের সময় ডেস্ক ঃ

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুল আলম হানিফ এমপি বলেছেন, আকস্মিক বন্যায় সিলেট ও সুনামগঞ্জ অঞ্চলের ব্যাপক এলাকা প্লাবিত হয়েছে। বহু মানুষের ঘরবাড়ি,রাস্তা-ঘাট ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। কিন্তু বন্যার শুরুর তিনদিন পরেই মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা সিলেটে এসেছেন। তিনি সিলেট ও সুনামগঞ্জের বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখেছেন। নেত্রীর ৭৫ বছর হয়ে গেছে। এই বয়সেও তিনি মায়া মমতা ভালবাসার কারণে সিলেটে ছুঁটে এসেছেন। বন্যার্তদের পাশে থাকার জন্য প্রশাসন এবং  জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দকে নির্দেশনা দিয়েছেন। জননেত্রীর নির্দেশনা অনুযায়ী কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দও ছুঁটে এসেছেন। ত্রাণ বিতরণের মাধ্যমে বন্যাকবলিত জনগণের পাশে থাকার জন্য এবং পুনর্বাসন হওয়ার আগ পর্যন্ত তাদেরকে সাহায্য সহযোগিতা করার জন্য দুটি নির্দেশনা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দকে দিয়েছেন। তিনি বলেছেন, সরকারের পক্ষ থেকেও সহযোগিতা অব্যাহত থাকবে।

সোমবার (২৭ জুন) ২৭নং ওয়ার্ডের গোটাটিকর ষাটঘর এলাকায় উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবনের আশ্রয়কেন্দ্রে মহানগর আওয়ামী লীগের উদ্যোগে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার পক্ষ থেকে সিলেট বন্যাদূর্গত এলাকায় বন্যার্তদের মধ্যে ত্রাণ বিতরণকালে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, বন্যা শুরুর পর থেকেই জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ বন্যার্তদের জন্য নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন। জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মাসুক উদ্দিন আহমদ, শফিকুর রহমান চৌধুরী (ভারপ্রাপ্ত)  ও সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট নাসির উদ্দীন খান, অধ্যাপক মোঃ জাকির হোসেন এর সাথে সবসময় আমাদের যোগাযোগ রয়েছে। নেতৃবৃন্দ বন্যাকবলিত এলাকাগুলোতে ত্রাণ কার্যক্রম অব্যাহত রেখেছেন। এটাই হলো আওয়ামী লীগ। আওয়ামী লীগ হলো গণমানুষের দল। জনগণের বিপদে আওয়ামী লীগ পাশে থাকে। জনগণের যে কোনো সংকটময় মুহূর্তে পাশে থাকাই হলো আওয়ামী লীগের কাজ। জননেত্রী শেখ হাসিনা জানেন, কিভাবে প্রাকৃতিক দুর্যোগ মোকাবিলা করতে হয়। দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের মানুষ আইলা, আমফান,  সিডরের মতো প্রাকৃতিক দুর্যোগ মোকাবেলা করেছেন। সেই দুর্যোগেও জননেত্রী নেতৃত্ব দিয়েছেন। সুতরাং আপনারা চিন্তা করবেন না, ভয় পাবেন না, আপনাদের পুনর্বাসনের আগ পর্যন্ত জননেত্রীর নেতৃত্বে আওয়ামী লীগ পাশে রয়েছে। আপনাদের কোনো সমস্যা হবে না। আপনারা শুধু প্রধানমন্ত্রীর জন্য দোয়া করবেন। তিনি যেন দীর্ঘায়ু লাভ করেন। মনে রাখবেন, প্রধানমন্ত্রী সুস্থ থাকলে, বাংলাদেশ সুস্থ থাকবে। বাংলাদেশ সুস্থ থাকলে, আপনারা সুস্থ থাকবেন।

মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মাসুক উদ্দিন আহমদ এর সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক মোঃ জাকির হোসেন এর পরিচালনায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক শ্রী সুজিত রায় নন্দী। তিনি বলেন, প্রাকৃতিক দুর্যোগ মোকাবেলায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা খুবই দক্ষ। নেত্রীর প্রাকৃতিক দুর্যোগ মোকাবেলায় দীর্ঘদিনের অভিজ্ঞতা রয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে যেকোনো দুর্যোগ মোকাবেলায় আওয়ামী লীগ সদা তৎপর । নেত্রীর নির্দেশে বন্যা শুরুর পর থেকেই আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দের সহযোগিতা অব্যাহত রয়েছে। আওয়ামী লীগের ত্রাণ উপকমিটির মাধ্যমে ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ চলমান রয়েছে এবং বন্যা পরবর্তী সময়ে পুনর্বাসনের ব্যবস্থায় সহযোগিতা অব্যাহত থাকবে।

এসময়ে উপস্থিত ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শফিকুর রহমান চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট নাসির উদ্দীন খান,  সহ-সভাপতি অধ্যক্ষ সুজাত আলী রফিক, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক কবির উদ্দিন আহমদ, সাংগঠনিক সম্পাদক এডভোকেট রঞ্জিত সরকার, উপ-দপ্তর মোঃ মজির উদ্দিন,  মহানগর আওয়ামী লীগের উপ-দপ্তর সম্পাদক অমিতাভ চক্রবর্ত্তী রনি , মহানগর আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী সদস্য  আজম খান(কাউন্সিলর), আব্দুল আজিম জুনেল, নুরুন নেছা হেনা, তৌফিক বক্স লিপন (কাউন্সিলর), ইলিয়াস আহমেদ জুয়েল, ২৭ নং ওয়ার্ডের সভাপতি নিজাম উদ্দিন ইরান, সাধারণ সম্পাদক ছয়েফ খাঁন  প্রমুখ।

এ বিভাগের অন্যান্য