হকার্স মার্কেটে অগ্নিকাণ্ডে ক্ষতিগ্রস্থ দোকান মালিকদের সাহায্য প্রয়োজন: জাকির

সিলেটের সময় ডেস্ক ঃ

সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক মোঃ জাকির হোসেন বলেছেন, নগরীর লালদীঘিরপাড়স্থ হকার্স মার্কেটে ২রা মে রাত ৩টা ১৮ মিনিটে যে ভয়াবহ অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটে এবং যে সকল দোকান মালিকরা ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছেন তাদের জন্য সাহায্যের হাত প্রসারিত করা প্রয়োজন। তিনি বলেন, এ ব্যাপারে ইতোমধ্যে মাননীয় পররাষ্ট্র মন্ত্রী ড. এ.কে আব্দুল মোমেন মহোদয় সরকারের দুর্যোগ ব্যবস্থনা মন্ত্রণালয়ের সাথে কথা বলেছেন।  তাছাড়া তিনি জেলা প্রশাসক জনাব মোঃ মজিবুর রহমানকেও এ বিষয়ে কাজ করতে বলেছেন। অধ্যাপক জাকির বলেন, এ বিষয়ে বিশেষ করে সিলেট সিটি কর্পোরেশনের সহযোগিতা একান্ত প্রয়োজন এবং নিশ্চয়  এসব বিষয়ে সিসিক’র দায় বদ্ধতা রয়েছে। তিনি সিটি কর্পোরেশনের মেয়র সহ সংশ্লিষ্ট সকল বিভাগের কর্মকর্তাদের দৃষ্টি আর্কষণ করেছেন। ব্যবসায়ীদের আর্থিকভাবে সহযোগিতার জন্য যথাযথ পদক্ষেপ গ্রহণ করা প্রয়োজন। যাতে করে ব্যবসায়ীরা তাদের ক্ষতি কিছুটা হলেও সামলে নিতে পারেন।
সোমবার (২মে) বিকাল ৪.টায় হকার্স মার্কেটে অগ্নিকাণ্ডে ক্ষতিগ্রস্থ দোকান তিনি আবারও পরিদর্শনে গিয়ে এসব কথা বলেন। এর আগে  সোমবার ভোর রাতে হকার্স মার্কেটের একজন ব্যবসায়ীর ফোনে দুর্ঘটনার খবর পেয়ে তিনিই প্রথম ঘটনাস্থলে ছুঁটে যান এবং ফায়ারসার্ভিস সহ পুলিশ বিভাগের সাথে যোগাযোগ করেন।
তিনি বলেন, হকার্স মার্কেট নগরীর একটি গুরুত্বপূর্ণ ব্যবসার জায়গা এবং এটি নগর ভবনের কাছাকাছি অবস্থিত। ব্যবসায়ীরা যাতে কোনো ধরনের দুর্ঘটনা ছাড়া নির্বিঘ্নে ব্যবসা-বাণিজ্য করতে পারে সেটি অবলোকন করা সিটি কর্পোরেশনের দায়িত্বের মধ্যে পড়ে। সুষ্ঠু পরিকল্পনার অভাব থাকলে এ ধরনের ঘটনা বারবারই ঘটবে। ইতিমধ্যে লক্ষ্য করা গেছে, নগরীতে পরিকল্পিত উন্নয়নের চেয়ে অপরিকল্পিত উন্নয়নই বেশি হচ্ছে। যার কুফল এই অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা একটি হতে পারে। তিনি বলেন আমরা দেখেছি, অপরিকল্পিত ব্যবস্থাপনার জন্য ড্রেনে পড়ে কবি বাসিত মারা গেছেন।
এরকম প্রায় সময়ই দেখি অনেকেই দুর্ঘটনার শিকার হন। যা জনমনে অস্বস্তি তৈরি করছে। সৎ চিন্তা ও সুষ্ঠু পরিকল্পনা না থাকলে প্রকৃত উন্নয়ন কখনো সম্ভব নয়। একটি সঠিক পরিকল্পনা জনগণকে বিভিন্ন ধরনের দুর্ঘটনা থেকে রক্ষা করতে পারে।তিনি ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসায়ীদের প্রতি সমবেদনা জানান  পাশাপাশি তিনি জীবনের ঝুঁকি নিয়ে ফায়ারসার্ভিসের যে সব কর্মকর্তা ও সদস্যরা অগ্নিকান্ড নিয়ন্ত্রণ করতে সার্বক্ষণিক কাজ করেছেন তাদের সহ পুলিশ, র‍্যাব, মহানগরের সাহসী কয়েকশত জনগণ , অনলাইন, প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিকবৃন্দ, সিটি কর্পোরেশনের বিভিন্ন বিভাগের কর্মকর্তা কর্মচারীদের প্রতি কৃতজ্ঞতা ও ধন্যবাদ জানান। সর্বোপরি মহান আল্লাহ্‌তা’লা সহায়ক ছিলেন বিধায় আরো বেশি ক্ষয়ক্ষতি থেকে তা রক্ষা হয়। তাই তিনি শুকরিয়া প্রকাশ করেন।তিনি আশা ব্যক্ত করেন, সংশ্লিষ্ট সকল বিভাগ ক্ষতিগ্রস্থ ব্যবসায়ীদের জন্য সাহায্যের হাত প্রসারিত করবেন।
এসময় উপস্থিত ছিলেন মহানগর আওয়ামী লীগের কৃষি ও সমবায় বিষয়ক সম্পাদক তপন মিত্র,কার্যনির্বাহী সদস্য আব্দুল আজিম জুনেল, এডভোকেট মোহাম্মদ জাহিদ সারোয়ার সবুজ, সুদীব দেব, আবুল মহসিন চৌধুরী মাসুদ, ছাত্রলীগ নেতা সিরাজুল ইসলাম মিরাজ, ফাহিম আহমদ প্রমুখ।
এ বিভাগের অন্যান্য