আল-আকসায় ইসরায়েলি হামলা, বাংলাদেশের নিন্দা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক ঃ

পবিত্র আল-আকসা মসজিদে রমজান মাসে নামাজরত ফিলিস্তিনিদের ওপর ইসরায়েলি দখলদারদের হামলায় ঘটনায় তীব্র নিন্দা জানিয়েছে বাংলাদেশ। সোমবার (২৫ এপ্রিল) বিশ্বের মুসলিম দেশগুলোর সংগঠন ইসলামি সহযোগিতা সংস্থার (ওআইসি) স্থায়ী সদস্য দেশগুলোর নির্বাহী কমিটির এক জরুরি সভায় এ নিন্দা জানানো হয়।

এদিন জেদ্দায় সদরদপ্তরে অনুষ্ঠিত ওআইসির সভায় যোগ দিয়ে আল-আকসা মসজিদ ও ফিলিস্তিনিদের ওপর ইসরায়েলি দখলদারদের হামলার তীব্র নিন্দা জানিয়ে ক্ষতিগ্রস্তদের প্রতি শোক এবং গভীর সমবেদনা জানান সৌদি আরবে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত ও ওআইসির স্থায়ী প্রতিনিধি ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী।

রাষ্ট্রদূত বলেন, পবিত্র রমজান মাসে ফিলিস্তিনি মুসলিমদের আল-আকসায় প্রবেশে বাধা দেওয়া হচ্ছে, তাদের ধর্মীয় আচার পালনে বাধা দেওয়া হচ্ছে যা খুবই দুঃখজনক। সেখানে ইসলামী মতাদর্শ, সংস্কৃতির ওপর আঘাত ও দখলদারদের মাধ্যমে ফিলিস্তিনিদের উচ্ছেদের বিষয়ে গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেন।

তিনি বলেন, কোনো যুক্তি বা অজুহাতই নিরীহ বেসামরিক ফিলিস্তিনিদের হত্যা ও নির্যাতনের ন্যায্যতা ও আন্তর্জাতিক আইন ও মানবাধিকার লঙ্ঘনের সমর্থন করতে পারে না।

ওআইসির স্থায়ী প্রতিনিধি জাবেদ পাটোয়ারী বলেন, বাংলাদেশ আল-আকসা মসজিদ এবং ফিলিস্তিনি ভূমিতে সহিংসতা ও নিরাপত্তা লঙ্ঘনের বিষয়টি গুরুত্বের সঙ্গে নেওয়ার জন্য জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদকে আহ্বান জানিয়েছে। বিশ্বের বিভিন্ন স্থানে চলমান নতুন কোনো সংকট ও সংঘাত যেন জাতিসংঘ ও আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের মনোযোগ ফিলিস্তিনের এ দীর্ঘদিনের সমস্যার সমাধান থেকে সরানো সঠিক হবে না বলে তিনি উল্লেখ করেন।

রাষ্ট্রদূত বলেন, জাতিসংঘের গৃহীত রেজুলেশন, আরব শান্তি উদ্যোগ এবং কোয়ার্টেট রোড ম্যাপ অনুযায়ী ফিলিস্তিন সমস্যার একটি সামগ্রিক ও টেকসই সমাধানের বিষয়ে বাংলাদেশ তার নীতিগত অবস্থান অব্যাহত রেখেছে। তিনি ফিলিস্তিন সমস্যার সমাধানে ওআইসিকে আরও কার্যকরি ভূমিকা রাখার অনুরোধ জানান।

সৌদি আরবের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত জরুরি এ বৈঠক শেষে সর্বসম্মতিক্রমে একটি যৌথ ঘোষণাপত্র গৃহীত হয়।

এ বিভাগের অন্যান্য