অধ্যাপক ডা. স্বপ্নীলের আয়োজনে সিলেটে ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত

দেশের প্রখ্যাত লিভার বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক, সিলেটের কৃতি সন্তান অধ্যাপক ডা. মামুন আল মাহতাব স্বপ্নীল ও তার সহধর্মিণী শহীদ বুদ্ধিজীবী ডা. আব্দুল আলীম চৌধুরীর কন্যা প্রখ্যাত চক্ষু বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক অধ্যাপক ডা. নুজহাত চৌধুরীর আয়োজনে ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে।

গতকাল শুক্রবার নগরের মির্জাজাঙ্গালস্থ একটি অভিজাত হোটেলে আয়োজিত ইফতার মাহফিল সিলেটের প্রগতিশীল ধারার নেতৃবৃন্দের মিলনমেলায় রুপ নেয়। এতে দেশ ও জাতির সমৃদ্ধি, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানসহ ১৫ আগস্টে শহীদগণ ও শহীদ বুদ্ধিজীবিদের রুহের মাগফেরাত কামনা করে মোনাজাত করা হয়।

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সুযোগ্য কন্যা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশের আরও উন্নয়ন -অগ্রগতি কামনা করে মহানগর জাতীয় ইমাম সমিতির সভাপতি মাওলানা হাবিব আহমদ শিহাব মোনাজাত পরিচালনা করেন।এর আগে অধ্যাপক ডা. মামুন আল মাহতাব স্বপ্নীল সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে বলেন, সিলেট আমার পিতৃভূমি। এখানের রক্তের উত্তরাধিকারী হিসেবে সবসময় সিলেটের মানুষের জন্যে কাজ করার অনুভব করি।

ছড়ারপাড়ে আমার পিতৃভুমি।আমি এই পূন্যভুমির সন্তান।একটা সময় মানুষ তার পিতৃভূমির টানে ছুটে আসে। আমিও এর উর্ধ্বে নই। এজন্য রাজধানী ঢাকার চেম্বার ফেলে সিলেটের লিভার রোগীদের চিকিৎসা দিতে নিয়মিত ছুটে আসি। সিলেটের মানুষের জন্যে জীবনের শেষ সময়েও কাজ করাই হচ্ছে আমার লক্ষ্য।জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে একটি অসাম্প্রদায়িক আধুনিক বাংলাদেশ আমরা গড়ে তুলতে চাই। অধ্যাপক ডা. নুজহাত চৌধুরী মাহফিলে আগত অতিথিবৃন্দের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

এতে, সিলেটে নিযুক্ত ভারতীয় সহকারী হাই কমিশনার নিরাজ কুমার যশওয়াল, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক এডভোকেট মিসবাহ উদ্দিন সিরাজ, সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি বীরমুক্তিযোদ্ধা মাসুক উদ্দিন আহমদ, সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ও সাবেক সংসদ সদস্য শফিকুর রহমান চৌধুরী, সম্প্রীতি বাংলাদেশের আহবায়ক বিশিষ্ট নাট্য ব্যাক্তিত্ব পীযুষ বন্দোপধ্যায়, সিলেট-৩ আসনের সংসদ সদস্য হাবিবুর রহমান হাবিব, মহানগর আওয়ামী লীগের সহসভাপতি

আসাদ উদ্দিন আহমদ, সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক জাকির হোসেন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বিজিত চৌধুরী, সিলেট চেম্বারের সভাপতি তাহমিন আহমদ, সিলেট জেলা আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট মাহফুজুর রহমান, গণতন্ত্রী পার্টির কেন্দ্রীয় সভাপতি ব্যারিস্টার আরশ আলী, দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালের স্পেশাল পিপি এডভোকেট সরওয়ার আহমদ চৌধুরী আবদাল,
বীরমুক্তিযোদ্ধা সদর উদ্দিন চৌধুরী ও বীরমুক্তিযোদ্ধা সুব্রত চক্রবর্তী জুয়েল, মেট্রোপলিটন ল’ কলেজের উপাধ্যক্ষ ড. এম শহিদুল ইসলাম, মহানগর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ডা. আরমান আহমেদ শিপলু, সিলেট জেলা কৃষক লীগের সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ শামছুল ইসলাম, সংক্ষুব্ধ নাগরিক আন্দোলন সিলেটের সমন্বয়ক আব্দুল করিম কিম, সিলেট বৌদ্ধ সমিতির সাধারণ সম্পাদক উৎফল বড়ুয়া, সিনিয়র সাংবাদিক আল-আজাদ, রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি সিলেট ইউনিটের সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রহমান জামিল, সিলেট জেলা আওয়ামীলীগের সাংস্কৃতিক সম্পাদক শামসুল আলম সেলিম, মহানগর আওয়ামী লীগের সাংস্কৃতিক সম্পাদক রজত কান্তি গুপ্ত, দৈনিক সিলেটের ডাক’র ব্যবস্হাপনা সম্পাদক রোটারিয়ান ওয়াহিদুর রহমান ওয়াহিদ, যুগভেরীর ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক অপূর্ব শর্মা, সিলেট প্রেসক্লাবের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ সিরাজুল ইসলাম ও ইকবাল মাহমুদ, বাংলাদেশ প্রতিদিনের সিলেট প্রতিনিধি শাহ দিদারুল আলম নবেল, জাগো নিউজের সিলেট প্রতিনিধি ছামির মাহমুদ, সরকারি মাধ্যমিক শিক্ষক সমিতির সিলেট জেলার সাধারণ সম্পাদক বিপ্লব নন্দী, সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী গোলাম সোবহান চৌধুরী, দর্পন থিয়েটারের সভাপতি নিরঞ্জন দে, নাট্যলোক সিলেটের সভাপতি খোয়াজ রহিম সবুজ, সিলেট প্রেসক্লাবের কোষাধ্যক্ষ কাউসার চৌধুরী, বাংলা নিউজের সিনিয়র রিপোর্টার মোহাম্মদ নাসির উদ্দিন, কালের কন্ঠের সিলেট প্রতিনিধি ইয়াহইয়া ফজল, দৈনিক ভোরের ডাকের সিলেট জেলা প্রতিনিধি এম এ হান্নান, ফটো জার্নালিস্ট এসোসিয়েশনের সিলেট বিভাগীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক আশকার আমিন রাব্বি, সাংস্কৃতিক কর্মী ধ্রুব গৌতম, কবি মাসুদা সিদ্দিকা রুহী, সাবেক ছাত্রলীগ নেতা জাহাঙ্গীর আলম, সিলেট জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সহসভাপতি রশিদ আহমদসহ জেলা প্রগতিশীল রাজনৈতিক দল ও সামাজিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।,

এ বিভাগের অন্যান্য