কুমিল্লায় নিখোঁজ শিশুর চোখ তোলা লাশ

কুমিল্লার সদর দক্ষিণ উপজেলায় নিখোঁজের দুই দিন পর সাত বছর বয়সী এক শিশুর মরদেহ পাওয়া গেছে ফসলি জমিতে। শিশুটির নানার পরিবার জানিয়েছে, সৎ বাবা ওই জমিতে শিশুর লাশ দেখিয়ে দিয়ে পালিয়ে গেছেন। এছাড়া সিলেট নগরের হাওলাদারপাড়ায় বসতবাড়ির ২০ গজ দূরে বাঁশঝাড় থেকে নিখোঁজ শিশুর এবং দিনাজপুরের ফুলবাড়ীতে শহিদুল ইসলাম নামের এক ব্যক্তির ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। বিস্তারিত কালের কণ্ঠের প্রতিনিধিদের পাঠানো খবরে—

কুমিল্লা : সদর দক্ষিণ উপজেলায় নিখোঁজের দুই দিন পর সাত বছর বয়সী এক শিশুর লাশ পাওয়া গেছে ফসলি জমিতে।

শিশুটির নানার পরিবার জানিয়েছে, সৎ বাবা স্থানীয় ওই জমিতে তার মরদেহ দেখিয়ে দিয়ে পালিয়ে গেছেন। খুনি শিশুটির চোখ তুলে ঘাড়ও ভেঙে ফেলেছেন। রবিবার রাত ৯টার দিকে উপজেলার চৌয়ারা বাজারসংলগ্ন ধনাজোড় গ্রাম থেকে লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। আজ সোমবার কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ওই শিশুর ময়নাতদন্ত সম্পন্ন হয়েছে। নিহত শিশু মো. বাপ্পি (৭) কুমিল্লা নগরীর কাটাবিল এলাকার দিনমজুর রাসেল মিয়ার ছেলে। আর সৎ বাবা রুবেল হোসেন ওরফে সেলিমের বাড়ি সদর দক্ষিণের ধনাজোড় গ্রামে। এ ঘটনায় রবিবার রাতে রুবেল হোসেন ওরফে সেলিমকে একমাত্র আসামি করে সদর দক্ষিণ মডেল থানায় হত্যা মামলা করেছেন নিহতের মামা আল আমিন। তবে আসামি এখন পলাতক।

সিলেট : সিলেট নগরের হাওলাদারপাড়ায় নিখোঁজ হওয়ার ৫০ ঘণ্টা পর বসতবাড়ির ২০ গজ দূরত্বে বাঁশঝাড়ে মিলল রাহুল (৩) নামের এক শিশুর লাশ। আজ সোমবার সকালে বাড়ির পাশের বাঁশঝাড়ে তার লাশ দেখতে পেয়ে থানায় খবর দিলে পুলিশ এসে লাশ উদ্ধার করে। রাহুল দাস হাওলাদারপাড়ার কালিবাড়ীর বাবুল দাসের কলোনির বাসিন্দা রুবেল দাসের ছেলে। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য এক নারীকে আটক করেছে পুলিশ।

দিনাজপুর : দিনাজপুরের ফুলবাড়ীতে পায়ের রগ কাটা অবস্থায় হাসকিং মিল থেকে শহিদুল ইসলাম (৬০) নামের এক ব্যক্তির ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করা হয়েছে হত্যায় ব্যবহৃত ছুরি ও আদালতের মামলার নথিপত্র। নিহত শহিদুল ইসলাম দক্ষিণ বাসুদেবপুর নয়াপাড়া গ্রামের মৃত আশরাফ মণ্ডলের ছেলে। তিনি পেশায় একজন কৃষি শ্রমিক ছিলেন।

নিহতের পরিবারের দাবি, জমির বিরোধকে কেন্দ্র করে শহিদুল ইসলামকে হত্যা করা হয়েছে। ফুলবাড়ী উপজেলার ৭ নম্বর শিবনগর ইউনিয়নের দাদপুর পুরাতন বন্দর আফতার আলী হাসকিং মিল থেকে লাশটি উদ্ধার করা হয়।

এ বিভাগের অন্যান্য