আসামি ধরতে গিয়ে অভিযোগকারীকেই মারধর, ৩ পুলিশ বরখাস্ত

সিলেটের সময় ডেস্ক ঃ

রাজধানীর যাত্রাবাড়ীর বিবির বাগিচা এলাকায় জাতীয় জরুরি সেবা-৯৯৯ নম্বরে ফোন করার পর পুলিশ এসে অভিযোগকারীকেই মারধর করেছে বলে অভিযোগ উঠেছে। অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা না নিয়ে ভুক্তভোগীদের হয়রানির ঘটনায় পুলিশ কর্তৃপক্ষের টনক নড়েছে। ঘটনা জানাজানি হলে অপেশাদার আচরণের অভিযোগে যাত্রাবাড়ী থানার তিন পুলিশ সদস্যকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। এ ঘটনায় একটি তদন্ত কমিটিও গঠন করেছে পুলিশ।

বরখাস্তকৃত তিন পুলিশ সদস্য হলেন যাত্রাবাড়ী থানার উপপরিদর্শক (এসআই) বিশ্বজিৎ সরকার, কনস্টেবল শওকত ও নারী কনস্টেবল নবনিতা।

ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) ওয়ারী বিভাগের উপপুলিশ কমিশনার (ডিসি) শাহ ইফতেখার আহমেদ জানান, একটি অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে যাত্রাবাড়ী থানার এক এসআই ও দুই কনস্টেবলকে বরখাস্ত করা হয়েছে। ঘটনাস্থলে এক আনসার সদস্য উপস্থিত ছিলেন। তাকে আনসার বাহিনীতে ফেরত পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় ওয়ারী বিভাগের অতিরিক্ত উপপুলিশ কমিশনার (এডিসি) কামরুল ইসলামকে প্রধান করে তিন সদস্যবিশিষ্ট একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে।

যাত্রাবাড়ী থানার ওসি মাজহারুল ইসলাম বলেন, যাত্রাবাড়ীর বিবির বাগিচা এলাকায় আসামি ধরতে গিয়ে ভুক্তভোগীদের পুলিশি নির্যাতনের ঘটনা ঘটেছে বলে অভিযোগ পাওয়া যায়। পরে অভিযোগের সত্যতা মেলায় তিন পুলিশ সদস্য ও এক আনসার সদস্যকে বরখাস্ত করা হয়েছে। এ বিষয়ে পরবর্তী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

জানা গেছে, সম্প্রতি যাত্রাবাড়ীর বিবির বাগিচা এলাকায় প্রতিবেশীর বিরুদ্ধে নানা অভিযোগ এনে ৯৯৯-এ ফোন করে একটি ভুক্তভোগী পরিবার। তবে আসামি ধরতে গিয়ে ভুক্তভোগীদেরই মারধর করে পুলিশ। মামলা দিয়ে ভুক্তভোগী পরিবারকে জেলেও দেওয়া হয়। পরে মারধরের ঘটনার ভিডিও ফুটেজসহ গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশ পেলে ওই পুলিশ সদস্যদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

এ বিভাগের অন্যান্য