মোবাইলে প্রেম, দেখা করতে এসে ধর্ষণের শিকার!

সিলেটের সময় ডেস্ক

মুঠোফোনে প্রেমের পর নরসিংদীর এক কিশোরী কিশোরগঞ্জে গিয়ে ধর্ষণের শিকার হয়েছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। ভুক্তভোগী ওই কিশোরী গতকাল বৃহস্পতিবার এ ঘটনায় কিশোরগঞ্জ সদর মডেল থানায় একটি লিখত অভিযোগ করেছেন।

থানার অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলার বিন্নাটি ইউনিয়নের দনাইল গ্রামের আসাদ মিয়ার ছেলে মো. আজহারুল ইসলামের সঙ্গে এক মাস আগে নরসিংদীর ওই কিশোরীর মুঠোফোনের মাধ্যমে পরিচয় হয়। পরে তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। এভাবে মুঠোফোনে চলে তাদের প্রেম। পরে গত মঙ্গলবার দুপুর ২টার দিকে প্রেমিক আজহারুল তার সঙ্গে দেখা করতে নরসিংদী থেকে কিশোরগঞ্জে ডেকে ভুক্তভোগীকে। সে অনুযায়ী এদিন কিশোরগঞ্জের সদর উপজেলার নতুন জেলাখানা মোড়ে দেখা করতে যান ওই কিশোরী।

এদিন প্রেমিক আজহারুল ও তার বন্ধু রাজন মিয়ার সঙ্গে শহরের বিভিন্ন জায়গায় সারাদিন ঘোরাফেরা করে কিশোরী। পরে রাত ১০টার দিকে আজহারুল ওই কিশোরীকে বাড়ি নিয়ে যাবে বলে বিন্নাটি একটি ভুট্টা ক্ষেতে নিয়ে যায়। সেখানে রাতভর জোরপূর্বক কিশোরীকে একাধিকবার ধর্ষণ করে আজহারুল। এ কাজে সহযোগিতা করে তার বন্ধু রাজন মিয়া। পরদিন সকাল ৬টার দিকে দুই বন্ধু কিশোরীকে রাস্তায় ফেলে চলে যায়। এ ঘটনায় স্থানীয় এলাকাবাসীর সহযোগিতায় ধর্ষণের শিকার কিশোরী কিশোরগঞ্জ মডেল থানায় আজহারুল ও রাজন মিয়াকে আসামি করে একটি অভিযোগ দায়ের করেন।
গণমাধ্যমকে অভিযোগের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন কিশোরগঞ্জ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মাদ দাউদ। তিনি জানান, অভিযোগ দায়ের পর থেকে আসামিদের ধরতে পুলিশের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে। তদন্ত করে আমরা আইনগত ব্যবস্থা নেব।

-বিডি-প্রতিদিন

এ বিভাগের অন্যান্য