পর্তুগালে স্বাধীনতা দিবস ও সুবর্ণজয়ন্তীর সমাপনী উদযাপন

সিলেটের সময় ডেস্ক ঃ

পর্তুগালে বাংলাদেশ দূতাবাসের উদ্যোগে ২৮ মার্চ সমুদ্র উপকূলীয় দৃষ্টিনন্দন শহর কাশকাইসের একটি পাঁচ তারকা হোটেলে বিভিন্ন দেশের কূটনীতিকদের উপস্থিতিতে স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীর সমাপনী ও ৫১তম স্বাধীনতা দিবস উদযাপন হয়েছে।

রাষ্ট্রদূত তারিক আহসান ও তার সহধর্মিণীসহ দূতাবাসের দুজন দ্বিতীয় সচিব আব্দুল্লাহ আল রাজী এবং আলমগীর হোসেন সস্ত্রীক আমন্ত্রিত সকল অতিথিদের স্বাগত জানান। ৪০ জনেরও বেশি বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্রদূতসহ পর্তুগিজ সরকারের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্বরত ব্যক্তি এবং বাংলাদেশ কমিউনিটির আওয়ামী লীগ বিএনপিসহ বিভিন্ন সংগঠনের ব্যক্তিরা এতে অংশগ্রহণ করেন।

বাংলাদেশ এবং পর্তুগালের জাতীয় সংগীত বাজানোর মধ্য দিয়ে মূল অনুষ্ঠান শুরু হয়। অতঃপর রাষ্ট্রদূত তারিক আহসান বাংলাদেশের গৌরবোজ্জ্বল স্বাধীনতার ইতিহাস ও স্বাধীনতাপরবর্তী বাংলাদেশের উন্নয়ন কর্মকাণ্ড তথা মানবতার প্রতীক হিসেবে ১০ লাখ রোহিঙ্গার আশ্রয় প্রদান করার বিষয়টি উপস্থিতিদের উদ্দেশে তুলে ধরেন।

অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণকারী বাংলাদেশের বন্ধুপ্রতিম পর্তুগালে নিযুক্ত চায়না রাষ্ট্রদূত জাও বেনতাং এবং ভারতের নিযুক্ত পর্তুগালের রাষ্ট্রদূত মানিশ চৌহান অংশগ্রহণ করতে পেরে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেন। তারা দুজনই প্রতিবেদককে জানান, বাংলাদেশ আমাদের অত্যন্ত ঘনিষ্ঠ বন্ধুপ্রতিম রাষ্ট্র, আমরা খুব কাছ থেকেই বাংলাদেশের এই উন্নতি লক্ষ্য করছি এবং তার উত্তরোত্তর সমৃদ্ধি কামনা করছি।

অনুষ্ঠানে দেশাত্মবোধক গানের সাথে প্রবাসী সংগীত শিল্পী সাদিয়া নৃত্য পরিবেশন করেন একই সাথে একটি চিত্রপ্রদর্শনীর আয়োজন করা হয়। বাংলাদেশি বিভিন্ন ঐতিহ্যবাহী রাতের খাবারের মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘোষণা করা হয়। উপস্থিত পর্তুগিজ সরকারের গুরুত্বপূর্ণ স্থানীয় বিভিন্ন অতিথিরা সুন্দর আয়োজনে যুক্ত হতে পেরে উষ্ণ মনোভাব প্রকাশ করেন এবং বাংলাদেশের উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রেখে খুব শীঘ্রই একটি উন্নত রাষ্ট্রে পরিণত হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

এ বিভাগের অন্যান্য