বারো বছর প্রেম এবং শারীরিক সম্পর্ক করে অন্যত্র বিয়ে, প্রবাসী প্রেমিকার আটক

সিলেটের সময় ডেস্ক ঃ

কাতার প্রবাসী শামিম আহমদ (২৬)। তার বিয়ের তারিখ ছিলো সোমবার (২১ মার্চ)। তাই এদিন বর সেজে কনের বাড়ি যাচ্ছিলেন তিনি। কিন্তু প্রেমিকার আনা ধর্ষণের অভিযোগে তাতে বাধ সাধে পুলিশ। কনের বাড়িতে প্রবেশের আগেই গেট থেকে বরকে গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে যাওয়া হয়।

সোমবার দুপুরে মৌলভীবাজারের রাজনগর উপজেলার পাঁচগাঁও ইউনিয়নে এ ঘটনা ঘটে। শামিম রাজনগর উপজেলার কামারচাক ইউনিয়নের মশাজান গ্রামের মৃত আব্দুল খালিকের ছেলে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, শামিম আহমদের সঙ্গে ১২ বছর আগে একই গ্রামের এক তরুণীর সম্পর্ক ছিল। সেই সুবাদে উভয়ের মধ্যে শারীরিক সম্পর্কও হয় বলে দাবি অভিযোগকারী মেয়েটির। কিন্তু বিয়ে হওয়ার আগেই শামিম প্রবাসে চলে যান। সাত বছর পর দেড় মাস আগে কাতার থেকে দেশে আসেন তিনি।

এতদিন ওই তরুণীর সঙ্গে মেবাইলফোনে যোগযোগ ছিল। সাত বছর পর দেশে এসে শামিমের অন্য জায়গায় বিয়ে ঠিক হয়। সোমবার বর সেজে শামিম যখন কনের বাড়ির দিকে যাত্রা শুরু করেন ঠিক তখনই তার আগের প্রেমিকা থানায় লিখিত অভিযোগ নিয়ে হাজির হন। অভিযোগ পেয়ে রাজনগর থানার পুলিশ কনের বাড়ির গেট থেকে বরকে আটক করে।

থানায় অভিযোগকারী তরুণী বলেন, ‘সে বিয়ে করার প্রতিশ্রুতি দিয়ে আমার সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক করে। কিন্তু এখন দেশে এসে আমাকে বিয়ে না করে অন্য জায়গায় বিয়ে করতে যাচ্ছে। তাই আমি অভিযোগ দিয়েছি।’

পাঁচগাঁও ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সিরাজুল ইসলাম চানা বলেন, ‘মেয়ে দাবি করেছে ১২ বছর ধরে তাদের সম্পর্ক। কিন্তু ছেলে সাত বছর পর দেড় মাস আগে দেশে এলেও কখনো স্থানীয় চেয়ারম্যান মেম্বারদের বিষয়টি জানায়নি বা বিচারপ্রার্থী হয়নি। তার এমন অভিযোগের কোনো তথ্য-প্রমাণও নেই। অথচ বিয়ের দিন এসে অভিযোগ করেছে।’

রাজনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. নজরুল ইসলাম বলেন, ‘এক তরুণীর লিখিত অভিযোগের ভিত্তিতে বরকে আটক করে নিয়ে আসা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলা হয়েছে। বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

সূত্র: জাগো নিউজ

এ বিভাগের অন্যান্য