চট্টগ্রাম বন্দরে জাহাজডুবি, নিখোঁজ ৫

সিলেটের সময় ডেস্ক ঃ

চট্টগ্রাম বন্দরের বহির্নোঙরে সিমেন্ট ক্লিঙ্কারবোঝাই একটি লাইটার জাহাজ ডুবে গেছে। জাহাজে থাকা ১৩ নাবিক লাফিয়ে পড়ে সাগরে ভাসতে থাকলে খবর পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছে কোস্টগার্ড। তাৎক্ষণিকভাবে আট নাবিককে জীবিত উদ্ধার করা সম্ভব হয়। বাকি পাঁচ নাবিক এখনো নিখোঁজ আছেন।

আজ শনিবার ভোরে বহির্নোঙরের আলফা অ্যাংকরেজে পারকি সমুদ্রসৈকতের কাছাকাছি সাঙ্গু দোভাষীবাজারের অদূরে বঙ্গোপসাগরে জাহাজটি ডুবে যায়। জাহাজটির নাম ‘এমভি টিটু-১৪’। এটি আবুল খায়ের গ্রুপের বলে জানা গেছে।

দুর্ঘটনার কারণ তাৎক্ষণিকভাবে জানাতে পারেনি কোস্ট গার্ড। কোস্ট গার্ডের কুতুবদিয়া, সাঙ্গু এবং হেডকোয়ার্টার্স থেকে তিনটি জাহাজ ঘটনাস্থলে পৌঁছে নিখোঁজদের খোঁজাখুঁজি শুরু করেছে। নৌবাহিনীর একটি জাহাজও সেই কাজে যোগ দিয়েছে।

চট্টগ্রাম বন্দরের সচিব মো. ওমর ফারুক বলেন, জাহাজটি সম্ভবত কোনো ধরনের যান্ত্রিক ত্রুটির কবলে পড়ে ডুবে গেছে। এতে ক্রু এবং শ্রমিক মিলিয়ে ১৩ জন ছিলেন। কোস্ট গার্ড আটজনকে জীবিত উদ্ধার করলেও পাঁচজন এখনো নিখোঁজ। তাদের উদ্ধারের চেষ্টা চলছে। জাহাজ ডুবির কারণে চট্টগ্রাম বন্দর জেটিতে জাহাজ চলাচলে কোনো সমস্যা নেই।

উদ্ধারকৃতদের বরাত দিয়ে কোস্ট গার্ডের পূর্ব জোনের একজন কর্মকর্তা বলেন, ড্রেজারের সঙ্গে ধাক্কা লেগে জাহাজটি ডুবে গেছে। কিন্তু আমরা ঘটনাস্থলে এসে কোনো ড্রেজার বা বালুবোঝাই নৌযান পাইনি। লাইটার জাহাজটি পুরোপুরি ডুবে গেছে।

এ বিভাগের অন্যান্য