প্রেমিক না আসায় বিষ খেয়ে অনশন ভাঙলেন প্রেমিকা

সিলেটের সময় ডেস্ক ঃ

রাজবাড়ীর কালুখালী উপজেলায় বিয়ের দাবিতে ব্র্যাক কর্মীর বাড়িতে অনশন করেছেন এক নারী। তবে প্রেমিক না আসায় মঙ্গলবার রাত ৯টার দিকে বিষপান করে অনশন ভাঙেন তিনি।
ঘটনাটি উপজেলার বোয়ালিয়া ইউনিয়নের হামরাট গ্রামের। প্রেমিকের নাম সাইফুল ইসলাম। তিনি একই গ্রামের লুহাই আলীর ছেলে। ভুক্তভোগী প্রেমিকা ফরিদপুরের সদরপুর উপজেলার নাগপুর গ্রামের বাসিন্দা। তিনি স্বামী পরিত্যক্তা।

ভুক্তভোগী নারী জানান, ঢাকার সাভারের হেমায়েতপুরে ব্র্যাককর্মী হিসেবে চাকরি করতেন সাইফুল। সেই সুবাদে তার সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে তার। তাকে বিয়েও করতে চান। কিন্তু বিয়ে না করে স্বামী-স্ত্রী পরিচয়ে একই বাসায় থাকতে শুরু করেন সাইফুল। এভাবেই কেটে যায় আট মাস।

গত সপ্তাহে হেমায়েতপুর থেকে বদলি হয়ে অন্যত্র চলে যান সাইফুল। এরপর প্রেমিকার সঙ্গেও যোগাযোগ বন্ধ করে দেন। প্রেমিকের কোনো খোঁজ না পেয়ে রাজবাড়ীর পাংশা উপজেলার পাটিকাবাড়ী গ্রামে আসেন ভুক্তভোগী নারী। পরে মানুষের দ্বারে দ্বারে ঘোরেন। কিন্তু কোথাও এমন মানুষ পাওয়া যায়নি। অবশেষে হেমায়েতপুর ব্র্যাক অফিসে যোগাযোগ করে জানতে পারেন সাইফুল ইসলাম কালুখালীর বোয়ালিয়া ইউনিয়নের হামরাট গ্রামের লুহাই আলীর ছেলে।

পরে মঙ্গলবার বিকেলে স্ত্রীর মর্যাদার দাবিতে সাইফুলের বাড়িতে অনশনে বসেন প্রেমিকা। রাত ৯ টায় মারধর করে তার কাছ থেকে মোবাইল ও ১৫ হাজার টাকা ছিনিয়ে নেন বাড়ির লোকজন। এ সময় বিষপানে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন ওই নারী। পরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে।

ভুক্তভোগী নারী বলেন, সাইফুল আট মাস আমার সঙ্গে সংসার করেছেন। আমার প্রথম সংসারও ভেঙেছেন। আমি সাইফুলের স্ত্রীর মর্যাদা চাই।

এ বিভাগের অন্যান্য