চুলের পরিচর্যায় কফি মাস্ক দারুণ কার্যকরী!

সিলেটের সময় ডেস্ক ঃ

আমরা অনেকেই অসময়ে ক্লান্তি কাটাতে বা ঘুম ঘুম ভাব এক মিনিটে দূর করতে কফি পান করে থাকি। কিন্তু কফি শুধু এ কাজের জন্যই দারুণ কার্যকর নয়; বরং একে নানাভাবে ব্যবহার করা যায় রূপচর্চায়।

ত্বকের যত্নে কফির ব্যবহার আমরা করে থাকলেও চুলের স্বাস্থ্য রক্ষায়ও যে কফি সমান কার্যকর, তা কি আপনার জানা আছে? বিউটিশিয়ানরা বলছেন, কফির উপাদান চুলপড়া বা খুশকি সমস্যা নিমেষেই দূর করে। চুলের গোড়াকে মজবুত রাখতেও নিয়মিত চুলে কফির মাস্ক ব্যবহার করতে পারেন।

কফির মধ্যে থাকা ক্যাফেইন মাথার ত্বক পরিষ্কার রাখতে সাহায্য করে। সেই সঙ্গে মাথার মৃত কোষগুলোও দূর করে। তা ছাড়া এতে থাকা অ্যান্টি অক্সিডেন্ট চুলের পরিপূর্ণ পুষ্টিও জোগায়। ডার্মাটোলোজিস্টরা বলছেন, সপ্তাহে মাত্র দুদিন কফি হেয়ার মাস্ক লাগালেই মিলবে সুফল। তাই আসুন জেনে নিন চুলের পরিচর্যায় কফি হেয়ার মাস্ক কীভাবে তৈরি করবেন।

মধু ও কফি পাউডার: চুলের যত্নে এই হেয়ার মাস্ক তৈরি করতে ২ টেবিল চামচ কফি পাউডারের সঙ্গে সমপরিমাণ মধু মিশিয়ে মসৃণ পেস্ট তৈরি করুন। এই মাস্কটি পুরো চুল এবং স্কাল্পে ভালোভাবে লাগিয়ে ৪০ মিনিট অপেক্ষা করুন। তারপর শ্যাম্পু দিয়ে মাথা ধুয়ে ফেলুন।

অলিভ অয়েল, অ্যালোভেরা জেল ও কফি পাউডার: এই হেয়ার মাস্কটির জন্য ১ টেবিল চামচ অলিভ অয়েল এবং ১ টেবিল চামচ তাজা অ্যালোভেরা জেলের সঙ্গে দুই টেবিল চামচ কফি পাউডার মিশিয়ে মসৃণ পেস্ট তৈরি করুন। এটি আপনার চুলে লাগান এবং আপনার মাথার ত্বকে লাগিয়ে আলতোভাবে ম্যাসাজ করুন। ২০ মিনিট পর শুকিয়ে গেলে শ্যাম্পু করে নিন।

নারকেল তেল ও কফি পাউডার: নারকেল তেল ও কফি পাউডারের এই মাস্ক তৈরি করতে একটি পাত্রে ৫ চামচ নারকেল তেল ও ২ চামচ কফি পাউডার নিয়ে মেশান ভালো করে। তারপর চুলে ব্যবহার করুন। অন্তত ২০ মিনিট মাথায় রাখুন। তারপর ধুয়ে নিন। সপ্তাহে দুদিন এই মাস্ক ব্যবহার করুন। উল্লেখ্য, এই হেয়ার মাস্কে ব্যবহারের জন্য নারকেল তেল সামান্য উষ্ণ গরম থাকতে হবে। এ ক্ষেত্রে লোহার পাত্রে নারকেল তেল গরম করে নিন। লোহার পাত্রে গরম করা তেল ব্যবহার করলে চুলের পুষ্টিতে ভালো কাজে আসে। ভালো সুফল পেতে মিশ্রণটি হালকা গরম অবস্থায় লাগাতে হবে।

ডিম ও কফি পাউডার: এই হেয়ার মাস্কের জন্য একটি ডিমের সঙ্গে তিন টেবিল চামচ কফি পাউডার মেশান। ১টি ডিমকে ভালো করে ফাটিয়ে স্মুথ পেস্ট তৈরি করুন। এই মাস্কটি চুলের গোড়া থেকে চুলের নিচ পর্যন্ত ভালোভাবে লাগান। এই মিশ্রণটি মাথার ত্বকে লাগিয়ে কয়েক মিনিট আলতোভাবে ম্যাসাজ করুন। তারপর ১৫ মিনিট রেখে শ্যাম্পু করে নিন।

কফি পাউডার ও দই: চুলের যত্নে কফি এবং টকদই দারুণ উপকারী। তাই এই মাস্কটি চুলে লাগাতে পারেন সপ্তাহে দুদিন। হেয়ার মাস্কটি তৈরি করতে ২ টেবিল চামচ কফি পাউডারের সঙ্গে সমপরিমাণ দই মেশান। এই মিশ্রণে কিছুটা লেবুর রস দিয়ে মসৃণ পেস্ট তৈরি করুন। এই পেস্টটি চুলে এবং মাথার ত্বকে লাগিয়ে শাওয়ার ক্যাপ দিয়ে মাথা ঢেকে রাখুন। ৩০-৪০ মিনিট পর হালকা গরম পানিতে চুল ধুয়ে ফেলুন।

এ বিভাগের অন্যান্য