হাদিসুরের জানাজায় মানুষের ঢল, দাফন সম্পন্ন

সিলেটের সময় ডেস্ক ঃ

ইউক্রেনের অলভিয়া বন্দরে আটকে থাকা বাংলাদেশি জাহাজ ‘বাংলার সমৃদ্ধি’তে রকেট হামলায় নিহত নৌ প্রকৌশলী হাদিসুর রহমান আরিফের জানাজা অনুষ্ঠিত হয়েছে। আজ মঙ্গলবার (১৫ মার্চ) সকাল ১০টায় বেতাগী উপজেলার কদমতলা গ্রামে তার জানাজা অনুষ্ঠিত হয়।

বেতাগী উপজেলার কদমতলা গ্রামে পারিবারিক কবরস্থানে দাদা আতাহার উদ্দিন হাওলাদার ও দাদি মোসা. রোকেয়া বেগমের কবরের দক্ষিন পাশে দাফন সম্পন্ন করা হয়েছে। এতে মানুষের ঢল নামে।

জানাজায় ইমামতি করেন বেতাগী কেন্দ্রীয় জামে মসজিদের পেশ ইমাম মাওলানা জিয়াউল হক।

এসময় বরগুনা ১ আসনের সাংসদ ধীরেন্দ্রনাথ দেবনাথ শম্ভু, বেতাগী উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মাকসুদুর রহমান ফোরকান, ইউএনও মো. সুহৃদ সালেহীন, পৌর মেয়র এবিএম গোলাম কবির, বাংলাদেশ শিপিং কর্পোরেশনের মহা ব্যবস্থাপক আবু সুফিয়ানসহ সর্বস্তরের মানুষ উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, ইউক্রেনে রাশিয়ার সামরিক অভিযান শুরু হওয়ার পর অলভিয়া বন্দরে আটকে পড়ে বাংলাদেশি জাহাজ এমভি বাংলার সমৃদ্ধি। সেখানে নোঙর করা অবস্থায় গত ২ মার্চ জাহাজটি রকেট হামলার শিকার হয়। ওই হামলায় প্রাণ হারায় জাহাজের থার্ড ইঞ্জিনিয়ার মো. হাদিসুর রহমান।

গতকাল সোমবার (১৪ মার্চ) দুপুর সোয়া ১২ টায় তুর্কি এয়ারলাইন্সের একটি ফ্লাইটে হাদিসুরেরমরদেহ হযরত শাহজালাল বিমানবন্দরে আসে। লাশ গ্রহণ করেন হাদিসুরের ছোট ভাইগোলাম মাওলা প্রিন্স। রাত পৌনে ১০ টার দিকে লাশ নিয়ে আসা হয় কদমতলা গ্রামে।

ইউক্রেনের অলভিয়া বন্দরে হামলার কবলে পড়া বাংলাদেশি ‘এমভি বাংলার সমৃদ্ধি’ জাহাজের তৃতীয় প্রকৌশলী হাদিসুর রহমানের মরদেহ নিজ বাড়ি বরগুনার বেতাগীতে পৌঁছেছে। সোমবার রাত ৯টা ৪৫ মিনিটে লাশ এসে পৌঁছায়।

এ বিভাগের অন্যান্য