‘এই লড়াই সমর্থন করে না রাশিয়ার সবাই’

আন্তর্জাতিক ডেস্ক ঃ

ইউক্রেনে রাশিয়ার হামলা শুরুর পর হাজার হাজার রুশ নাগরিক দেশ ছেড়ে চলে গেছেন। তাঁরা ইউক্রেনে মস্কোর আগ্রাসন সমর্থন করছেন না। এছাড়া সে দেশে থেকে যাওয়া হাজার হাজার মানুষ ভ্লাদিমির পুতিন প্রশাসনের সিদ্ধান্তের বিরোধিতা করে রাস্তায় নেমেছেন। বিক্ষোভকারীদের ব্যাপকহারে ধরপাকড় চালানোর খবর পাওয়া গেছে।

বিবিসি বলছে, তাঁদের বেশিরভাগই বয়সে তরুণ এবং স্বাধীনচেতা। তাঁরা রাশিয়ার আগ্রাসন এবং নিষেধাজ্ঞা দেখে হতভম্ব হয়ে পড়েছেন। ভ্লাদিমির পুতিনের নেতৃত্বে ভিন্নমতাবলম্বীদের বিরুদ্ধে সর্বশেষ কঠোর পদক্ষেপের ব্যাপারেও তাঁরা উদ্বিগ্ন।

জানা গেছে, রাশিয়া ছেড়ে অন্তত ২৫ হাজার মানুষ জর্জিয়া চলে গেছেন। তাঁদের মধ্যে একজন ইয়েভজেনি। তিনি বয়সে তরুণ। গায়ে থাকা কোর্টের সঙ্গে তিনি ইউক্রেনের পতাকাসদৃশ ফিতা সেঁটে নিয়েছেন।

কোর্টের সঙ্গে এভাবে ফিতা সেঁটে রেখে ইউক্রেনের প্রতি সমর্থন দেওয়ার জেরে তিনি আটক হয়েছিলেন। ইউক্রেনে রাশিয়ার হামলা শুরুর পরের দিনের ঘটনা এটি।

২৩ বছর বয়সী ইয়েভজেনি রাজনীতি বিষয়ে পড়াশোনা করে স্নাতক ডিগ্রি লাভ করেছেন। তিনি বলেছেন, আমি বুঝতে পেরেছিলাম- পুতিনের শাসনের বিরুদ্ধে কাজ করার সবচেয়ে ভালো উপায় হবে রাশিয়া থেকে চলে যাওয়া। ইউক্রেনীয়দের সাহায্যের জন্য আমি যা করতে পারি, সেটা করা আমার দায়িত্ব।

ইউক্রেনে আগ্রাসন শুরুর পর জনগণকে প্রকৃত তথ্যপ্রাপ্তি থেকেও দূরে রাখছেন পুতিন। সে দেশে সংবাদমাধ্যমে স্বাধীনতায় হস্তক্ষেপ করা হচ্ছে। এমনকি সে দেশে মিথ্যা বা ভুল তথ্য ছড়ানো হলে ১৫ বছর পর্যন্ত কারাদণ্ডের বিধান রাখা হয়েছে। সে কারণে আন্তর্জাতিক বেশ কয়েকটি গণমাধ্যম রাশিয়ায় কার্যক্রম স্থগিত করে দিয়েছে।

সূত্র: বিবিসি।

এ বিভাগের অন্যান্য