রাশিয়াকে বিব্রত করতে সড়কের নাম বদলের উদ্যোগ নানা দেশে

আন্তর্জাতিক ডেস্ক ঃ

প্রতিবেশী ইউক্রেনে চলমান সামরিক অভিযান নিয়ে রাশিয়াকে বিব্রত করা ও ইউক্রেনের সঙ্গে সংহতি প্রকাশের উদ্দেশ্যে বিশ্বের কয়েকটি শহরে রুশ দূতাবাসসংলগ্ন সড়কের নাম পরিবর্তন করা হচ্ছে। কয়েকটির নাম ইতিমধ্যেই বদলে গেছে।

রাস্তাগুলোর নতুন নাম হচ্ছে ইউক্রেনকে কেন্দ্র করে। নাম পরিবর্তনের মাধ্যমে রাশিয়ার দূতাবাসকে বাধ্য করা হচ্ছে তাঁদের দাপ্তরিক কাগজপত্র এবং অন্যান্য কাজে ইউক্রেনের নাম ইতিবাচকভাবে উল্লেখ করতে।

কারণ এর মধ্যে রয়েছে ‘মুক্ত ইউক্রেনের বীরেরা’র মতো নাম।

ডেনমার্কের রাজধানী কোপেনহেগেনের একটি রাস্তার নাম ’ক্রিস্টিয়ানিয়া স্ট্রিট’। সম্প্রতি রাস্তাটির নাম পরিবর্তন করে ইউক্রেনগেডে বা ‘ইউক্রেন স্ট্রিট’ রাখার প্রস্তাব করা হয়েছে। কোপেনহেগেনের রুশ দূতাবাসের সামনে যুদ্ধবিরোধী বিক্ষোভের সময় লিবারেল বাম দলের নেতা জ্যাকব এলেম্যান জেনসেন রাস্তাটির নাম পরিবর্তনের প্রস্তাব দেন। তিনি এ সময় বলেছিলেন, ’আসুন আমরা রাশিয়ার আধিপত্যের বিরুদ্ধে লড়াইরত সাহসী পুরুষ ও নারীদের সম্মান জানাই। আর ডেনমার্কে পুতিনের পাঠানো দূতকে দিই একটি স্থায়ী স্মৃতিস্তম্ভ। ’

 

লিথুয়ানিয়ার রাজধানী ভিলনিয়াসের যে সড়কে রাশিয়ার দূতাবাস, ৯ মার্চ তার নাম পরিবর্তন করে রাখা হয়েছে ‘মুক্ত ইউক্রেনের বীরেরা’। রুশ দূতাবাসকে বাধ্য করা হয়েছে তাঁদের ঠিকানায় পুরনো নামটি বাদ দিয়ে নতুনটি লিখতে। ভিলনিয়াসের মেয়র রেমিগিজুস সিমাসিয়াস এ ব্যাপারে ফেসবুক স্ট্যাটাসে লিখেছেন, ‘যারা রুশ দূতাবাসের সঙ্গে ডাকযোগাযোগ করেন তাঁরা অবশ্যই ইউক্রেনে রাশিয়ার আগ্রাসনের ভুক্তভোগী তথা ইউক্রেনীয় বীরদের কথা অন্তত একবার হলেও ভাবতে বাধ্য হবেন। ঠিকানায় নতুন স্ট্রিটের নাম না লিখলে পোস্ট অফিস কর্তৃপক্ষ কোনো চিঠিই রাশিয়ার দূতাবাসে বিলি করবে না। ‘

চেক রিপাবলিক পার্লামেন্টের একজন সদস্য প্রাগ শহরের রুশ দূতাবাসের রাস্তাটিকে লিথুয়ানিয়ার মতোই ‘মুক্ত ইউক্রেনের বীরেরা’ নামকরণের প্রস্তাব দিয়েছেন। ২০২০ সালে প্রাগের রুশ দূতাবাসঘেঁষা একটি স্কয়ারের নাম রাখা হয়েছিল মস্কোতে খুন হওয়া রাশিয়াবিরোধী রাজনীতিক বরিস নেমৎসভের নামে। নেমৎসভ ছিলেন পুতিনের কট্টর সমালোচক। আলবেনিয়ার রাজধানী তিরানায় ৭ মার্চ থেকে রুশ দূতাবাসের কাছে সড়কের নাম পরিবর্তন করে রাখা হয়েছে ‘ফ্রি ইউক্রেন স্ট্রিট’। ‘কসোভোর বিরুদ্ধে সার্বিয়ার যুদ্ধ এবং ইউক্রেনের বিরুদ্ধে রাশিয়ার যুদ্ধ আমাদের প্রজন্মকে সংজ্ঞায়িত করেছে। একইভাবে ফ্রি ইউক্রেন স্ট্রিট রাস্তাটিও আমাদের শহরকে সংজ্ঞায়িত করব’ বলে টুইটারে মন্তব্য করেছেন তিরানার মেয়র এরিয়ন ভেলিয়াজ।

প্রসঙ্গত, সার্বিয়া এবং কসোভোর দূতাবাসও তিরানার একই সড়কে অবস্থিত। লাটভিয়ার রাজধানী রিগায় রুশ দূতাবাসসংলগ্ন রাস্তার নাম পরিবর্তন করে ‘স্বাধীন ইউক্রেন সড়ক’ করার সিদ্ধান্ত হয়েছে। কানাডার রাজধানী অটোয়াতে অবস্থিত রুশ দূতাবাসের সড়কের নাম ‘জেলেনস্কি বুলভার্ড’ করার সিদ্ধান্তও প্রায় চূড়ান্ত। যুক্তরাজ্যের লিবারেল ডেমোক্র্যাট দল গত মঙ্গলবার লন্ডনের রুশ দূতাবাসের পাশের রাস্তার নাম ‘কেনসিংটন প্যালেস গার্ডেন’ পরিবর্তন করে ‘জেলেনস্কি এভিনিউ’ করার প্রস্তাব দিয়েছে।

 

এ বিভাগের অন্যান্য