নবীগঞ্জে মাছ ধরাকে নিয়ে দু’পক্ষের সংঘর্ষে আহত ১০

সিলেটের সময় ডেস্ক ঃ

হবিগঞ্জের নবীগঞ্জ উপজেলার দেবপাড়া ইউনিয়নের সাতাইহাল গ্রামে বিজনা নদীতে জাল দিয়ে মাছ ধরাকে কেন্দ্র করে দুই পক্ষের সংঘর্ষে অন্তত ১০ জন আহত হয়েছে। এদের মধ্যে ৫ জনকে নবীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। বাকিদের স্থানীয় ভাবে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। মঙ্গলবার (০৮ মার্চ) সকালে বাক-বিতন্ডার এক পর্যায়ে এ সংর্ঘষের ঘটনা ঘটে।

আহতরা হলেন মৃত ফিরোজ মিয়ার পুত্র আঙ্গুর মিয়া (৩২), মৃত মাওলানা আব্দুর রউফ এর পুত্র আবু ইউসুফ (৪০),মৃত নজির উদ্দিন এর পুত্র নাজিম উদ্দিন (২৮), মঈন উদ্দিনের ছেলে শরিফ উদ্দিন মান্না (১৬)। নবীগঞ্জ থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

জানা যায়, সাতাইহাল গ্রামের বশির মিয়া ও হায়দার শাহ এবং একই গ্রামের আঙ্গুর মিয়ার গং দের মধ্যে বিজনা নদীতে জাল দিয়ে মাছ ধরা নিয়ে বাকবিতণ্ডা হয়। এক পর্যায়ে উভয় পক্ষের লোকজন দেশীয় অস্ত্র নিয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পরে।

আহত আঙ্গুর মিয়া জানান, সম্প্রতি ইয়াওর মিয়া কে উৎখাত করে বিজনা নদীতে জাল পেতে মাছ ধরে পতিপক্ষের কাজল মিয়া। পতিপক্ষের লোক ইয়াওর এর জাল কেটে দেওয়ায় ইয়াওর পতিপক্ষের দায়ী করে গালিগালাজ করে। পরবর্তীতে ইয়াওর কে মারধর করে কাজল মিয়া । এনিয়ে আকষ্মিক উভয় পক্ষ সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়লে দু’গ্রুপের ১০ জন আহত হয়।

এসময় বশির মিয়া সহ তার লোকজনের হামলায় আমি সহ ৭/৮ জন আহত হয়। পরে আহতদের নবীগঞ্জ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয় অন্যদের প্রাথমিক চিকিৎসা করোনো হয়।

ভর্তির বিষয়টি নিশ্চিত করেন নবীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এর কর্তবরত চিকিৎসক অলক বনিক।

নবীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ডালিম আহমেদ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, সংঘর্ষের খবর পেয়ে পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। দুই পক্ষ থেকে কোন অভিযোগ করা হয়নি। অভিযোগ পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এ বিভাগের অন্যান্য