সামনে ‘বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশন’ ব্যানার, ভেতরে দোকান; সওজ করল উচ্ছেদ

সিলেটের সময় ডেস্ক ঃ

আশুলিয়ার নবীনগর-চন্দ্রা মহাসড়কের পাশে সড়ক ও জনপথ বিভাগের জায়গায় অবৈধভাবে গড়ে ওঠা বিভিন্ন স্থাপনা উচ্ছেদে অভিযান পরিচালনা করেছে সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তর ঢাকা জোন। এ সময় দলখলদররা কৌশল হিসেবে স্থাপনা বা দোকানের সামনে ‘বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশন’ লেখা ব্যানার ব্যবহার করে। কিন্তু ভেতরে মারুফ এন্টারপ্রাইজ নামে দোকান। শুধু তাই না, মুক্তিযোদ্ধাসহ বিভিন্ন সংগঠনের নাম ব্যবহার করে তারা দখল কাজ ব্যাহত করার পাঁয়তারা করে।

বৃহস্পতিবার সকাল থেকে বিকাল পর্যন্ত নবীনগর থেকে পল্লীবিদ্যুৎ, পলাশবাড়ি ও বাইপাইল এলাকায় সড়ক ও জনপথ  অধিদপ্তরের ঢাকা জোনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. কামরুজ্জামান মিয়ার নেতৃত্বে এ উচ্ছেদ কার্যক্রম পরিচালনা করা হয়।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট কামরুজ্জামান মিয়া বলেন, নিয়মিত অভিযানের অংশ হিসেবে মহাসড়কে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়। তবে উচ্ছেদ করলেও পরে আবার দখলদাররা স্থাপনাসহ ফুটপাতে দোকান চালু করা চেষ্টা করে। আমাদের জনবর সংকটের কারণে এসব জায়গা পাহারায় রাখা বা নিয়মিত অভিযান চালানো সম্ভব হয় না। তবে এ বিষয়ে সড়ক ও জনপথ কাজ শুরু করেছে, যাতে নিয়মিত নজরিদারি ও জনবল বাড়ানো যায়।

পুলিশ জানায়, আশুলিয়ার নবীনগর থেকে বাইপাইল মোড় পর্যন্ত প্রভাবশালীরা বিভিন্ন পাকা ও আধাপাকা দোকান নির্মাণ করেছে। কয়েক কিলোমিটার এলাকাজুড়ে নির্মাণ করা এসব দোকানপাট গড়ে উঠছে। সকালে নবীনগর চন্দ্রা মহাসড়কের  চন্দ্রাগামী নবীনগর থেকে বাইপাইল মোড় পর্যন্ত বুলডোজার দিয়ে এসব স্থাপনা গুঁড়িয়ে দেওয়া হয়েছে।

অভিযান চলাকালে সড়ক ও জনপথের মানিকগঞ্জ বিভাগের প্রকৌশলী আরাফাত সাকলাইন রাফি, নয়ারহাট জোনের উপসহকারি প্রকৌশলী মো. নাইমুল ইসলাম, সার্ভেয়ার মো. শহিদুল ইসলামসহ কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। এ সময় সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তরের ২৫-৩০ জন শ্রমিক এতে অংশ নেন।

 

এ বিভাগের অন্যান্য