মা চান ছেলের ১ বছরের সাজা, স্ত্রীদের দাবি ৬ মাস!

সিলেটের সময় ডেস্ক ঃ

রানা দিনাজপুরের বিরামপুর উপজেলার পৌরশহরের কলাবাগান এলাকার হাফিজ উদ্দিনের ছেলে। গতকাল (রবিবার) সন্ধ্যায় উপজেলা প্রাণিসম্পদ অফিসে ঢুকে পড়েন মাদকের টাকা জোগাড় করতে। সেখানে গিয়ে পুলিশের হাতে ধরা পড়েন রানা। ঠিক একই সময় ঘরে বসে মাদক সেবন করছিলেন বুলেট বাবু।

তিনি পূর্বজগন্নাথপুর এলাকার বছির উদ্দিনের ছেলে। মাদকসহ তাকে আটক করে পুলিশ।

পরে তাদের তোলা হয় উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট (ইএনও) পরিমল কুমার সরকারের ভ্রাম্যমাণ আদালতে। সেখানে উপস্থিত হন উভয় অভিযুক্তের মা এবং স্ত্রী। আদালতে মায়েরা তাদের সন্তানদের এক বছরের সাজা দাবি করেন। অন্যদিকে স্ত্রীরা ছয় মাসের কারাদণ্ড চান। তাদের বক্তব্যের পর ম্যাজিস্ট্রেট রানাকে তিন মাস এবং বাবুকে দুই মাসের কারাদণ্ড প্রদান করেন।

শাস্তিপ্রাপ্তদের পরিবার জানায়, তারা নিয়মিত নিজ ঘরে বসে মাদক সেবন করত। মাদক সেবনের দায়ে তারা বেশ কয়েকবার জেল খেটেছেন।

পুলিশ জানায়, রবিবার সন্ধ্যায় নেশার টাকা জোগার করতে উপজেলা প্রাণিসম্পদ কার্যালয়ে ঢোকেন রানা। পরে অফিসের লোকজন তাকে আটক করে পুলিশকে খবর দেয়। অন্যদিকে বুলেট বাবু নিজ ঘরে বসেই মাদক সেবন  করার সময় পুলিশের হাতে আটক হন।

ইউএনও পরিমল কুমার বলেন, ‘ভ্রাম্যমাণ আদালতে ওই দুই যুবকের মায়েরা কমপক্ষে এক বছরের এবং তাদের স্ত্রীরা ছয় মাসের সাজা দাবি করেন। পরে তাদের তিন ও দুই মাসের প্রদান করা হয়। ‘

এ বিভাগের অন্যান্য