৭ জেলায় ৭ বিয়ে, র‍‍্যাবের হাতে ধরা

সিলেটের সময় ডেস্ক  ঃ

মানুষকে বিদেশে পাঠানোর নাম করে টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগে শাকিল আজাদ (২৯) নামের এক যুবককে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব। র‌্যাব জানিয়েছে, প্রতারণার মাধ্যম হিসেবে ওই যুবক বেছে নিয়েছেন বিয়েকে। যেখানে বিয়ে করেন, সেখানে নিজেকে পরিচয় দেন কাতারপ্রবাসী হিসেবে। এরই মধ্যে প্রতারণার শিকার ব্যক্তিদের কাছে ওই প্রতারক ‘কাতারি জামাই’ হিসেবে পরিচিত হয়ে উঠেছেন।

বুধবার সন্ধ্যায় এসব তথ্য জানান র‌্যাব-১১, সিপিসি-২ কুমিল্লার কম্পানি কমান্ডার মেজর মোহাম্মদ সাকিব হোসেন। তিনি জানান, নতুন নতুন বিয়ে করে শ্বশুরবাড়ির এলাকার বেকার যুবকদের কাতারে নেওয়ার কথা বলে মোটা অঙ্কের টাকা হাতিয়ে নেন ওই প্রতারক। প্রথমে স্বল্প পরিচিত কারো এলাকায় ঘুরতে যাওয়ার বাহানায় দরিদ্র কিংবা অসচ্ছল পরিবারের মেয়েকে প্রবাসী পরিচয়ে বিয়ে করতেন তিনি। এমন করে সাতটি জেলায় সাতটি বিয়ে করেছেন তিনি। পরে প্রতারণার শিকার ভুক্তভোগীরা অভিযোগ করেন আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর কাছে।

মঙ্গলবার গভীর রাতে কুমিল্লা সদর দক্ষিণ উপজেলার পদুয়ার বাজার বিশ্বরোড এলাকা থেকে ওই যুবককে গ্রেপ্তার করে র‌্যাব। এ সময় তাঁর কাছ থেকে সাতটি পাসপোর্ট জব্দ করা হয়। তাঁর বাড়ি কুমিল্লার বরুড়া উপজেলায়।

মেজর সাকিব বলেন, ১৫ দিন আগে আজাদের চতুর্থ স্ত্রী কুমিল্লা র‌্যাব অফিসে বিস্তারিত লিখে অভিযোগ দায়ের করেন। এরপরই তাঁকে গ্রেপ্তার করে র‌্যাব।

 

এ বিভাগের অন্যান্য