শ্রীমঙ্গলে বন্ধুর হাতে বন্ধু খুন, ঘাতক সজিব গ্রেফতার

সিলেটের সময় ডেস্ক ঃ

মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলে বন্ধুর হাতে বন্ধু খুনের ঘটনায় ঘাতক সজিব (৩০)কে গ্রেফতার করেছে থানা পুলিশ। রোববার ভোর রাতে শহরের রেল স্টেশন এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। সে শহরের শান্তিবাগ আবাসিক এলাকার আলমগীর মিয়ার ছেলে।

সজিবকে গ্রেফতারের বিষয়টি নিশ্চিত করে শ্রীমঙ্গল থানার অফিসার ইনচার্জ আব্দুছ ছালেক বলেন, ‘তথ্য প্রযুক্তির মাধ্যমে তার অবস্থান শনাক্ত করে রোববার ভোররাত সাড়ে তিনটার দিকে রেল স্টেশন থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে। সে ট্রেনযোগে পালানোর চেষ্টা করেছিল।’

তিনি আরো জানান, গ্রেফতারের পর সজিব তার বন্ধু শরীফকে ছুরিকাঘাতের কথা স্বীকার করে সে জানায়, শরিফ তার মোবাইল নিয়ে বিক্রি করে দেয়। মোবাইল ফেরত দেয়া নিয়ে তাদের মধ্যে কয়েক দফা কথা কাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে শরীফকে সে ছুরিকাঘাত করে। শরীফ এবং সজিব তারা দুজন’ই মাদকাসক্ত ছিল বলেও ওসি জানান।

এদিকে ঘটনার ৩১ ঘন্টার মধ্যে ঘাতক সজিবকে গ্রেফতারে সক্ষম হওয়ায় থানা পুলিশকে সাধুবাদ জানিয়েছেন বিভিন্ন ব্যাক্তি ও প্রতিষ্টান। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এ নিয়ে থানা পুলিশের ভূয়শী প্রশংসা করতে দেখা গেছে অনেককেই।

উল্লেখ্য, গত শনিবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে শহরের কলেজ রোডস্থ শ্রীমঙ্গল প্রেসক্লাবের সামনে শরিফকে ছুরিকাঘাত করে পালিয়ে যায় তার বন্ধু সজিব। মারাত্মক আহতাবস্থায় তখন শরিফ ছটফট করছিল। এসময় লোকজন এগিয়ে গেলে সে তার পরিচয় দিয়ে জানায়, শান্তিবাগ আবাসিক এলাকার সজিব তাকে ছুরিকাঘাত করেছে। এসময় সে তার ঠিকানা শহরতলীর শাহজীবাজার এলাকায় এবং তার বাবার নাম শায়েস্তা মিয়া বলে জানান। শ্রীমঙ্গল থানার ওসি (তদন্ত) হুমায়ূন কবির শরিফকে উদ্ধার করে শ্রীমঙ্গল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষনা করেন। পরে তার জবানবন্দির আলোকেই সজিবকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

এ বিভাগের অন্যান্য