‘নয়া দামানে’র পর এবার ভাইরাল‘জীবন খাতা’

ডেস্ক :: আইলারে নয়া দামান আসমানেরও তেরা/ বিছানা বিছাইয়া দেও শাইল ধানের নেড়া/ দামান বও দামান’ গানের পর এবার নেট দুনিয়ায় ভাইরাল হয়েছে ‘জীবন খাতায় প্রেম কলঙ্কের দাগে দাগাইয়া, ছাড়িয়া যাইওনারে বন্ধু মায়া লাগাইয়া।’

সম্প্রতি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক ও ইউটিউবে ভাইরাল হয়েছে গানটি। নেট দুনিয়ায় ভাইরাল এই গান এখন মানুষের মুখে মুখে। গানটিতে ঠোঁট মিলিয়ে একের পর এক ভিডিও হচ্ছে।

জানা যায়, ‘জীবন খাতায়’ শিরোনামে সুনামগঞ্জের ছাতকের ছেলে মতিউর রহমান হাসান (পাগল হাসান) গানটি লিখেছেন ও সুর দিয়েছেন। তিন মাস আগে পাগল হাসান ইউটিউব চ্যানেল থেকে গানটি প্রকাশ হয়। এরপর সিলেটের আরেক শিল্পী বিথী চৌধুরী নৌকায় বসে উকূলেলের (যন্ত্র) সঙ্গে তাল মিলিয়ে কণ্ঠ দেন।

পাগল হাসান ও বিথীর গাওয়া এই গানটি ব্যাপক সাড়া ফেলে। টিকটক, লাইকি, ফেসবুকসহ সোস্যাল মিডিয়ায় এখন কোটি মানুষের মধ্যে জায়গা করে নিয়েছে। শুধুমাত্র বিথীর ফেসবুক আইডি থেকে প্রচার করা গানটি ইতিমধ্যেই ১০মিলিয়ন ভিউয়ার্স দেখেছেন।

এ ব্যাপারে মতিউর রহমান হাসান জানান, গানটি আমি নিজেই লিখে সুর ও কণ্ঠ দেই। আমার ইউটিউব চ্যানেল থেকে চলতি বছরের ফেব্রুয়ারি মাসে এটি প্রকাশিত হয়েছিল। ‘জীবন খাতা’ গানটি একটি প্রেমের গান।

তিনি বলেন, গানটা মানুষের মনে এত তাড়াতাড়ি জায়গা করে নিবে ভাবতেই পারিনি। এর মাধ্যমে তুলে ধরতে চেয়েছি প্রেম-ভালোবাসা জোর করে নয়, এটা মন থেকে আসে। অনেকেই ভালোবাসা পাওয়ার জন্য অনেক কিছু করে থাকেন। কিন্তু সেই ভালোবাসা বেশি দিন টিকে না।

পাগল হাসান বলেন, বিথী মূলত গানটি শখের বসে গেয়েছিল। আমার কণ্ঠে ছেলেরা ও বিথীর কণ্ঠে মেয়েরা গানটিতে ঠোঁট মিলিয়েছেন।

তিনি শ্রোতাদের কাছে অনুরোধ জানিয়ে বলেন, গানটাকে কেউ সুর পাল্টে বির্তকিত করবেন না। কারণ, অনেক সময় দেখা যায় গানের কথা সুর বদলে ফেলা হয়।

উল্লেখ্য, টিকটকে খোলা গলায় আইলারে নয়া দামান গান গেয়ে ছিলেন সুনামগঞ্জের আরেকজন তসিবা বেগম। পরে সেই গানটি কাভার করে ইউটিউবে প্রকাশ করেন প্রবাসী শিল্পী মুজা ও তসিবা।

সৌজন্যে : কালের কণ্ঠ

এ বিভাগের অন্যান্য