সিরিজের মাঝপথে কোহলির দেশে ফেরা নিয়ে কড়া সমালোচনা গাভাস্কারের

সিরিজের মাঝপথে সতীর্থদের রেখে অধিনায়ক বিরাট কোহলির অস্ট্রেলিয়া ছেড়ে আসা নিয়ে চটেছেন দেশটির কিংবদন্তি ক্রিকেটার সুনীল গাভাস্কার।

অ্যাডিলেডে প্রথম টেস্টে ঐতিহাসিক লজ্জার হারের পরও কোহলি দ্বিতীয় টেস্ট না খেলায় তার দায়িত্বশীলতা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন গাভাস্কার।

সম্প্রতি টি নটরাজন ও রবিচন্দ্রন অশ্বিনের উদাহরণ টেনে ভারতীয় ক্রিকেটে বৈষম্যের মারাত্মক অভিযোগ তুললেন গাভাস্কার।

তিনি জানান, অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজে ভালো পারফরম করা নটরাজনকে রেখে দেয়া হলো। তার স্ত্রী ভারতে কন্যাসন্তান জন্ম দিয়েছেন। কিন্তু টেস্টে দলের এমন পরিণতির পরও অধিনায়ক কোহলিকে দেশে ফিরতে দেয়া হচ্ছে। অথচ কোহলি ও আর নটরাজনের ইস্যু একই।  এটিই এখন ভারতের ক্রিকেটে। একেকজনের বেলায় একেক নিয়ম চলছে।  এ থেকে ভারতের ক্রিকেট প্রভাব বিস্তারের বিষয়টি বেশ পরিলক্ষিত।

সম্প্রতি স্টার স্পোর্টসে সুনীল গাভাস্কার কলাম লেখেন– ‘যখন আইপিএল প্লেঅফ চলছিল, প্রথমবারের মতো বাবা হয়েছিল নটরাজন। কিন্তু তাকে অস্ট্রেলিয়া সিরিজের জন্য রেখে দেয়া হয়েছিল। ভারতে ফিরতে দেয়া হয়নি। অথচ ভারতীয় দলে সে ছিল না। সে ছিল তখন নেট বোলার।  একবার ভাবুন, একজন ম্যাচ উইনারকে বলা হচ্ছে নেট বোলার হতে। তার ওপর বাবা হওয়ার সময় তাকে ছুটিও দেয়া হচ্ছে না। অস্ট্রেলিয়া সিরিজ শেষে অর্থাৎ জানুয়ারির তৃতীয় সপ্তাহের আগে মেয়ের মুখ দেখতে পারছে না সে। উল্টো দিকে দলের অধিনায়ক বাবা হবে বলে প্রথম টেস্ট খেলেই দেশে ফিরে আসছে। একেকজনের জন্য একেকরকম নিয়ম।’

এর পর রবিচন্দ্রন অশ্বিনের উদাহরণ তুলে গাভাস্কার লিখেছেন– ‘অশ্বিনকেও মাঝে মাঝেই এমন বৈষম্যের শিকার হতে হয়েছে। তার বোলিং নিয়ে একজন মূর্খও প্রশ্ন তুলবে না। কিন্তু টিম মিটিংয়ে সোজাসাপ্টা কথা বলার জন্য, বুদ্ধি-বিবেচনা প্রয়োগ করার জন্য, তাকে বিপদে পড়তে হয়েছে। একমত না হলেও বাকিরা যেখানে চোখ বুজে, মাথা নেড়ে সব কিছুতে সায় দিয়ে যায়, অশ্বিন সেটি করে না। তাই একটা ম্যাচে একটু বেশি উইকেট না পেলেই ওকে পরের ম্যাচে বসিয়ে রাখা হয়। এটি কিন্তু প্রতিষ্ঠিত ব্যাটসম্যানদের ক্ষেত্রে হয় না।’

গাভাস্কার অভিযোগের সুরে লিখেছেন– ‘এটিই ভারতের ক্রিকেট। ভিন্ন ভিন্ন ক্রিকেটারের জন্য ভিন্ন ভিন্ন নিয়ম। আমার কথা বিশ্বাস না হলে একবার অশ্বিন বা নটরাজনকে জিজ্ঞেস করে দেখুন।’

প্রসঙ্গত আগামী ২৬ ডিসেম্বর, ৭ ও ১৫ জানুয়ারিতে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে তিনটি টেস্ট খেলবে ভারত। জানুয়ারির শুরুতে সন্তানসম্ভবা স্ত্রী আনুশকার পাশে থাকলে এই তিন টেস্ট না খেলেই দেশে ফিরছেন কোহলি।

তথ্যসূত্র: ক্রিক ট্র্যাকার

এ বিভাগের অন্যান্য