করোনা পরিস্থিতিতে সিলেটে লন্ডনের ১৬৫জন যাত্রী

করোনাভাইরাসের মধ্যে লন্ডন থেকে বাংলাদেশ বিমানের বিজি ২০২ ফ্লাইটে করে সিলেটে ওসমানী বিমানবন্দরে নেমেছেন ১৬৫জন যাত্রী। বৃহস্পতিবার (২৪ ডিসেম্বর) সকাল ৯টা যাত্রীবাহী বিমানটি সিলেটে আসে। যাত্রীদের মধ্যে কেউ করোনা আক্রান্ত আছেন কিনা সে বিষয়টি খতিয়ে দেখছে সিলেট ওসমানী বিমানবন্দরে থাকা স্বাস্থ্য বিভাগের একটি দল। তবে যাদের করোনার নেগেটিভ সার্টিফিকেট রয়েছে তাদেরকে বিমানবন্দরে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করার পর ছেড়ে দেয়া হয়।

সিলেট স্বাস্থ্য বিভাগের সহকারী পরিচালক ডা. আনিসুর রহমান বলেন, স্বাস্থ্য বিভাগের একটি বিশেষ টিম সিলেট ওসমানী বিমানবন্দরে কাজ করে যাচ্ছে। তারা যাত্রীদের সার্বিক পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে করোনাভাইরাসের সংক্রামণ আছে কিনা তা খতিয়ে দেখছেন। লন্ডন থেকে আগত যাত্রীদের করোনানেগেটিভ যাত্রীদের কিছু নির্দেশনা ও পরীক্ষা করে ছেড়ে দেয়া হচ্ছে। এছাড়াও তাদেরকে বাধ্যতামূলক ৭দিন হোম কোয়ারেন্টিনে থাকতে বলা হয়েছে।

তিনি আরও জানান, লন্ডন থেকে আগত যাত্রীদের মধ্যে এখনও পর্যন্ত কারও করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়নি।

সিলেট ওসমানী বিমানবন্দরের ব্যবস্থাপক হাফিজুর রহমান চৌধুরী বলেন, লন্ডনের হিথ্রো বিমানবন্দর থেকে বিজি ২০২ ফ্লাইটে করে ১৬৫জন সিলেটের বাসিন্দা লন্ডন থেকে আসেন। তাদেরকে বিশেষভাবে পরীক্ষা নিরীক্ষা করে যাচ্ছে স্বাস্থ্য বিভাগের একটি দল।

এদিকে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক বুধবার (২৩ ডিসেম্বর) সাংবাদিকদের জানান, যুক্তরাজ্য থেকে কোনো বিমানযাত্রী কভিড-১৯ নেগেটিভ সার্টিফিকেট ছাড়া বাংলাদেশে এলে তাকে সাতদিনের জন্য বাধ্যতামূলক কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে।

মন্ত্রী জানান, যুক্তরাজ্য থেকে আসা সকল যাত্রীর জন্য আলাদা লাইন করা হবে এয়ারপোর্টে। যাদের কভিড নেগেটিভ সার্টিফিকেট থাকবে না, তাদের সেখানেই পরীক্ষার ব্যবস্থা করা হবে। এরপর সেখান থেকেই তাদের বাধ্যতামূলক কোয়ারেন্টিনে পাঠানো হবে ঢাকার আশকোনার হজক্যাম্পে। কিন্তু যুক্তরাজ্যের সঙ্গে বিমান চলাচল এখনি বন্ধ করছে না সরকার।

এ বিভাগের অন্যান্য