বরিশালের হয়ে খেলতে গিয়ে ইনজুরিতে সিলেটের রাহী

বল হাতে রান আপে ছুটে যাচ্ছিলেন আবু জায়েদ চৌধুরী রাহী। ডেলিভারি স্ট্রাইডে লাফ দেওয়ার ঠিক আগ মুহূর্তে হলো গড়বড়। লাফ না দিয়ে একটু খুঁড়িয়ে খুঁড়িয়ে এগিয়ে পড়ে গেলেন মাঠে। খানিক পর ফরচুন বরিশালের হয়ে খেলা সিলেটের এই পেসারকে মাঠ ছাড়তে হলো স্ট্রেচারে।

বঙ্গবন্ধু কাপে মিরপুর শের-ই-বাংলা স্টেডিয়ামে মঙ্গলবার মিনিস্টার গ্রুপ রাজশাহীর বিপক্ষে ম্যাচের নবম ওভার চিল সেটি। আবু জায়েদের ছিল তৃতীয় ওভার। দ্বিতীয় ডেলিভারির আগেই ওই বিপত্তি।

বাইরে থেকে দেখে চোটের ধরন ঠিক বোঝা যায়নি। শুরুতে উরুতে হাত চেপে ধরলেও পরে আবু জায়েদকে দেখা যায় হাঁটু চেপে ধরে রাখতে। অভিব্যক্তিতে ছিল প্রচণ্ড যন্ত্রণার ছাপ।

বরিশাল দলের পক্ষ থেকে একটু পরে জানানো হয়, আবু জায়েদের পেশি ক্র্যাম্প করেছে। খুব গুরুতর নয় তার চোট। আপাতত তাকে রাখা হয়েছে পর্যবেক্ষণে।

বরিশালের বোলারদের চরম দুর্দশার ম্যাচে একটু নিয়ন্ত্রিত বোলিং করছিলেন রাহী।

বরিশাল দলের চেয়েও অবশ্য বেশি উৎকণ্ঠা নিয়ে সিলেটের ছেলে রাহীর জন্য অপেক্ষায় থাকবে জাতীয় দলের টিম ম্যানেজমেন্ট। আগামী মাসেই বাংলাদেশ সফরে আসার কথা ওয়েস্ট ইন্ডিজ দলের। টেস্টে বাংলাদেশের পেস আক্রমণের মূল ভরসা তিনিই।

এ বিভাগের অন্যান্য