পাসপোর্ট করতে গিয়ে লাশ হয়ে ফিরলেন ছাত্রলীগ নেতা

পাসপোর্ট করতে গিয়ে লাশ হয়ে ফিরলেন  শাহ জালাল সুজন (২৫) নামে এক ছাত্রলীগ নেতা। কুমিল্লার মনোহরগঞ্জে ট্রাকচাপায় মৃত্যু হয় তার।

সোমবার দুপুর ২টার দিকে কুমিল্লা-নোয়াখালী আঞ্চলিক মহাসড়কে উপজেলার খিলা এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহত শাহ জালাল সুজন উপজেলার উত্তর হাওলা ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ছিলেন। তিনি ওই ইউনিয়নের উত্তর হাওলা গ্রামের মৃত ইয়াকুব আলীর ছেলে।

নিহতের মামা মঞ্জুর আলম জানান, সুজন সোমবার সকালে পাসপোর্ট করতে নোয়াখালীর মাইজদী গিয়েছিলেন। ওইদিন দুপুরে তিনি সেখান থেকে বাসযোগে ফিরে খিলায় নামেন। পরে খিলা থেকে ব্যাটারিচালিত রিকশায় করে বাড়ি ফিরছিলেন। এ সময় চালকের অসাবধানতার কারণে কুমিল্লাগামী একটি ট্রাক রিকশাটিকে চাপা দেয়।

এতে সুজন, রিকশায় থাকা আরেক যাত্রী এবং চালক গুরুতর আহত হন। পরে স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করে লাকসামের একটি হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক সুজনকে মৃত ঘোষণা করেন। স্থানীয়রা ওই ট্রাকটিকে আটক করেছে।

উত্তর হাওলা  ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি আরেফিন রুবেল ঘাতক ট্রাকচালকের বিচারের দাবি জানান।

লালমাই হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ জিয়া উদ্দিন এ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

এদিকে সোমবার রাত ৮টায় তার গ্রামের বাড়িতে জানাজার নামাজ শেষে পারিবারিক কবরস্থানে তাকে দাফন করা হয়। এ সময় টেলিকনফারেন্সে বক্তব্য রাখেন এলজিআরডি মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম। এ সময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ ও অঙ্গসংগঠনের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ।

এ বিভাগের অন্যান্য