কমলগঞ্জে পল্লীবিদ্যুতের ডিজিএমের মৃত্যু

মৌলভীবাজার পল্লীবিদ্যুৎ সমিতির কমলগঞ্জ জোনাল অফিসের ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার (ডিজিএম) প্রকৌশলী গনেশ চন্দ্র দাস (৫৫) ব্যাডমিন্টন খেলতে গিয়ে আকস্মিক মৃত্যু হয়েছে। তার মৃত্যু শোকের ছায়া নেমে এসেছে এলাকায়।

শনিবার ৫ ডিসেম্বর রাত ১০টায় পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির অভিযোগ কেন্দ্রস্থ ব্যাডমিন্টন মাঠে তিনি পড়ে গেলে সেখান থেকে কমলগঞ্জ হাসপাতালে নেয়ার পর কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

জানা যায়, মৌলভীবাজার পল্লী বিদ্যুত সমিতির কমলগঞ্জ জোনাল অফিসের ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার প্রকৌশলী গনেশ চন্দ্র দাস দেশে বাড়ি বরিশালের পটুয়াখালীতে লাশ দাহ করা হয়েছে। কমলগঞ্জ অফিসের যোগদান করেন ২০১৯ সালের ৫ ডিসেম্বর। ঠিক এ বছরপূর্ণ হবার দিন তিনি মারা গেলেন। প্রতিদিনের মতো সমিতির অফিসস্থ মাঠে ব্যাডমিন্টন খেলছিলেন। খেলা চলাকালীন সময়ে হঠাৎ পা পিছলে পড়ে যান। পড়ে যাবার পর তাকে সাথে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত ডাক্তার আব্দুল আউয়াল মৃত ঘোষনা করেন। স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্তব্যরত ডাক্তার মৃত ঘোষনার করার পর তার মৌলভীবাজার লাইফ লাইন প্রাইভেট হাসপাতালে নিয়ে গেলে সেখানেও তাকে পূনরায় মৃত ঘোষনা করা হয়।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ডাক্তার আব্দুল আউয়াল বলেন, হাসপাতালে নিয়ে আসার পর কোন ধরনের শরীরে পার্লস পাওয়া যায়নি। ঘটনাস্থলে তার মৃত্যু হয়।

কমলগঞ্জ পল্লী বিদ্যুত সমিতির এজিএম কম উবাদুল ক ও লাইন টেকনেশিয়ান জাফর আহমেদ বলেন, সকল এক সাথে খেল ছিলাম। খেলার সময় পড়ে যান তিনি। তার এমন মৃত্যুতে আমরা গভীর শোকাহত। দুই সন্তান ও স্ত্রী নিয়ে কমলগঞ্জে ভাড়া বাসায় থাকতেন। রাত সাড়ে ১১ টায় শ্রীমঙ্গলস্থ মৌলভীবাজার পল্লী বিদ্যুত সমিতির প্রধান কার্যালয়ে একনজর দেখার জন্য তার লাশ নেয়া হয়। পরে লাশ রাতেই আত্মীয় স্বজন আসার পর গ্রামের বাড়ি বরিশালের পুটুয়াখালী নেয়া হয়।

এদিকে ডিজিএমের হঠাৎ মৃত্যু কমলগঞ্জ পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি কর্মকর্তা,কর্মচারীসহ এলাকাবাসীর মধ্য শোকেরছায়া নেমে এসেছে।

এ বিভাগের অন্যান্য