দেশে ফিরলেন সাকিব

 

স্পোর্টস ডেস্ক ,

যুক্তরাষ্ট্র থেকে দেশে ফিরেছেন আইসিসির র‌্যাংকিংয়ে শীর্ষে থাকা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান।

বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত ২টার দিকে কাতার এয়ারওয়েজের একটি ফ্লাইটে রাজধানীর হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে তিনি অবতরণ করেন।

বিসিবির প্রস্তাবিত টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্টে খেলবেন সাকিব। বুধবার বিসিবি প্রকাশিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে ফিটনেস টেস্টে নাম রয়েছে তার। ৯ নভেম্বর থেকে শুরু হবে এই ফিটনেস টেস্ট। সেই অনুশীলনে যোগ দিতে বৃহস্পতিবার রাতেই ফিরলেন সাকিব।

তবে সাকিবের একটি ঘনিষ্ঠ সূত্র নিশ্চিত করেছে, বিকেএসপিতে নয়, বরং হোম অব ক্রিকেটে অনুশীলন করবেন সাকিব। সে হিসাবে ১০ নভেম্বর হয়তো শেরেবাংলায় ব্যাট ও বল হাতে অনুশীলনে দেখা মিলবে তার।

নিজের ভুলে এক বছর ক্রিকেট থেকে নির্বাসিত হয়েছিলেন এই বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার। গত ২৯ অক্টোবর তার নিষেধাজ্ঞা শেষ হয়েছে। নিষেধাজ্ঞার এই সময়টা বেশিরভাগ পরিবারের সঙ্গেই ছিলেন তিনি। যুক্তরাষ্ট্রে থাকা স্ত্রী ও সন্তানের সঙ্গেই বেশিরভাগ সময় কাটে তার। সবশেষ সেপ্টেম্বরের শেষ দিকে তিনি সেখানে যান।

নিষেধাজ্ঞার পর সাকিব এক বার্তায় অনুজ ও সতীর্থদের বলেছেন, ‘দুর্নীতির কোনো প্রস্তাব হালকাভাবে নিও না। দ্রুত দুর্নীতি দমন কর্তাদের জানাতে ভুল করো না।’

যদিও করোনা ও নিষেধাজ্ঞাকে আশীর্বাদ হিসেবেই দেখছেন সাকিব।

বুধবার নিজের ইউটিউব চ্যানেলে এক ভিডিওবার্তায় বিশ্বসেরা এ অলরাউন্ডার বলেন, করোনা ও নিষেধাজ্ঞা এ দুটি ব্যাপার আমাকে জীবন নিয়ে ভিন্নভাবে চিন্তা করতে শিখিয়েছে। অনেক বেশি চিন্তা করার সুযোগ করে দিয়েছে। হয়তো এমন লড়াইয়ে না থাকলে মানুষ শিখতে পারে না। এ ধরনের পরিস্থিতি থেকে ফিরলে মানুষ অনেক বেশি পরিপক্ব হয়। আমারও সেই চেষ্টা থাকবে। এক বছর আগে যেভাবে চিন্তাভাবনা করতাম এখন তার চেয়ে অনেক বেশি করি। এটিই হয়তো আমাকে অনেক বেশি সাহায্য করবে।

অবশ্য নিষেধাজ্ঞা তেমন একটা ক্ষতি করতে পারেনি সাকিবের। ওয়ানডে অলরাউন্ডারের র‌্যাংকিংয়ে শীর্ষে থেকে নিষিদ্ধ হয়েছিলেন তিনি। আর সর্বশেষ র‌্যাংকিং আপডেটে দেখা গেছে, শীর্ষেই আছেন তিনি। করোনার কারণে খেলা স্থগিত থাকায় মোহাম্মদ নবী, ক্রিস ওকস, বেন স্টোকসদের কেউ তাকে পেছনে ফেলতে পারেনি।

এ বিভাগের অন্যান্য