সতীর্থদের আগের বিশ্বাস ফিরে পাবেন কিনা শঙ্কায় সাকিব

 

স্পোর্টস ডেস্ক ,

এক বছর নির্বাসন শেষে ঘরোয়া টি-টোয়েন্টি লিগ দিয়ে ফের মাঠে ফিরছেন সাকিব আল হাসান।

বিশ্বসেরা অলরাউন্ডারও মুখিয়ে আছেন ২২ গজের মাঠে স্বরূপে ফিরতে। সে লক্ষ্যে বৃহস্পতিবার রাতে দেশের মাটিতে পা রেখেছেন এ টাইগার ‘সুপারম্যান’।

এর আগে নিজের ইউটিউব চ্যানেলে এক ভিডিওবার্তায় নিষেধাজ্ঞা-পরবর্তী ক্রিকেট নিয়ে ভক্ত-অনুরাগীদের বেশ কিছু প্রশ্নের খোলামেলা জবাব দিয়েছেন সাকিব।

একটি বিষয়ে সন্দিহান বলে জানিয়েছেন সাকিব। তার মতে, ‘জুয়াড়ির সঙ্গে কথা হওয়ায় ঘটনা লুকানোয়’ ড্রেসিংরুমের কেউ তাকে অবিশ্বাস করতে পারেন।

ক্রীড়াভিত্তিক ওয়েবসাইট ক্রিকবাজের করা এক প্রশ্নের জবাবে এমন আশঙ্কার কথাই জানালেন সাকিব।

তিনি বলেন, কেউ আমাকে অবিশ্বাস করবে কিনা কঠিন প্রশ্ন। কারণ কার মনে কী আছে আমি বলতে পারব না। তারা আমার প্রতি অনাস্থা দেখাতে পারে। অবিশ্বাস করতে পারে। এটি আমি একেবারে উড়িয়ে দিতে পারছি না। তাদের আগের বিশ্বাস ফিরে পাব কিনা নিশ্চিত নই।

অবশ্য পরের কথায় সতীর্থদের প্রশংসাই করলেন সাকিব। বলেন, জাতীয় দলের অনেক সর্তীথের সঙ্গে আমার কথাবার্তা হচ্ছে। আমি তাদের কারও মধ্যে এমন কোনো আচরণ দেখতে পাইনি যে, তারা আমাকে এ বিষয়ে বিব্রত করবে। আমি মনে করি, সতীর্থরা আমাকে এখন তেমনভাবে বিশ্বাস করবে যেমনটি আগে করেছে। তবে কেউ যদি তার মনের গভীরে আমার প্রতি অবিশ্বাস পোষণ করে থাকে, তাতে কিছু করার নেই। সেটি সে করতেই পারে।

অবশ্য নিজের এ কৃতকর্মের বিষয়ে ইতিমধ্যে অনুজ ও সতীর্থদের প্রতি আর্জি রেখেছেন সাকিব।

তিনি বলেছেন, ‘দুর্নীতির কোনো প্রস্তাব হালকাভাবে নিও না। দ্রুত দুর্নীতি দমন কর্তাদের জানাতে ভুল করো না।’

এ ছাড়া করোনা ও নিষেধাজ্ঞাকে আশীর্বাদ হিসেবেই দেখছেন তিনি।

বিশ্বসেরা এ অলরাউন্ডার বলেন, করোনা ও নিষেধাজ্ঞা এ দুটি ব্যাপার আমাকে জীবন নিয়ে ভিন্নভাবে চিন্তা করতে শিখিয়েছে। অনেক বেশি চিন্তা করার সুযোগ করে দিয়েছে। আমাকে পরিপক্ব করেছে। এক বছর আগে যেভাবে চিন্তাভাবনা করতাম, এখন তার চেয়ে অনেক বেশি করি। এটিই হয়তো আমাকে অনেক বেশি সাহায্য করবে।

এ বিভাগের অন্যান্য