ওমরাহ নিয়ে ফেসবুকে স্ট্যাটাস, এজেন্সিকে নোটিশ দিল ধর্ম মন্ত্রণালয়

করোনা পরিস্থিতির মধ্যে ওমরাহযাত্রী পাঠানোর ঘোষণা দিয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে স্ট্যাটাস দেয়ায়সালওয়া ওভারসিজ (লাইসেন্স নং-২৬৯) নামের একটি এজেন্সিকেকারণ দর্শানোর নোটিশ দিয়েছে ধর্ম মন্ত্রণালয়।

এতে জাতীয় হজ ও ওমরা নীতি-২০১৯ এর ২৪.২ অনুযায়ী তাদের বিরুদ্ধে কেন শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে না- আগামী তিনদিনের মধ্যে লিখিতভাবে অথবা ই-মেইলে নোটিশের জবাব দিতে বলাহয়েছে।

বৃহস্পতিবার ধর্ম মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সহকারী সচিব আবুল কাশেম মোহাম্মদ শাহীন স্বাক্ষরিত এক চিঠিতে এ কারণ দর্শানোর নোটিশ দেয়া হয়।

সালওয়া ওভারসিজের ওই ফেসবুক স্ট্যাটাসে বলা হয়, ‘ইনশাআল্লাহ ১৫ নভেম্বরের মধ্যে ওমরা হজ ফ্লাইট দেয়ার চেষ্টা করছি। হাজিদের সেবাই আমাদের মূল উদ্দেশ্য।’

মন্ত্রণালয়ের চিঠিতে বলা হয়, বিশ্বব্যাপী করোনা পরিস্থিতির কারণে ওমরাহ কার্যক্রম ২৬ ফেব্রুয়ারি থেকে বন্ধ রয়েছে। এ বিষয়ে বাংলাদেশ সরকার কোনো অনুমতি না দিলেও ফেসবুকে উল্লি­খিত স্ট্যাটাস প্রদান করে জনগণের সঙ্গে প্রতারণা ও জনমনে বিভ্রান্তি সৃষ্টি করা হয়েছে, যা জাতীয় হজ ও ওমরাহ নীতির পরিপন্থী। এ বিষয় মন্ত্রণালয় থেকে টেলিফোনে আলাপকালে প্রতিষ্ঠানের জিএম হাজী হেলাল উদ্দিন জানান, সরকারের বাইরে ও সৌদি আরবের সঙ্গে তাদের যোগাযোগ রয়েছে এবং অন্য এজেন্সির মাধ্যমে ওমরা হজ যাত্রীদের প্রেরণ করা হবে।

এটি জাতীয় হজ ও ওমরা নীতির পরিপন্থী উল্লেখ করে মন্ত্রণালয়ের চিঠিতে বলেছে, যেহেতু ২০১৪ সালে সালওয়া ওভারসিজ মন্ত্রণালয়ে সমর্পণ করে জামানত অর্থ ফেরত নিয়েছে তথাপি তারা ওমরা সংক্রান্ত বিশেষ ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে শাস্তিযোগ্য অপরাধ করেছে।

এ বিভাগের অন্যান্য