নিষেধাজ্ঞা সত্ত্বেও মাধবকুণ্ড জলপ্রপাতে উপচেপড়া ভিড়

মাধবকুণ্ড জলপ্রপাত ও ইকোপার্কে প্রবেশে সরকারি নিষেধাজ্ঞা থাকলেও প্রতিদিন বিনোদনপ্রেমীদের উপচেপড়া ভিড় জমছে। পর্যটন পুলিশ ও স্থানীয় বন বিভাগের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের কোনো বাধাই মানছেন না দূরদূরান্ত থেকে আগত পর্যটকরা।

প্রধান ফটক তালাবদ্ধ কিন্তু ভিন্নপথে ঠিকই জলপ্রপাতে যাচ্ছেন শত শত পর্যটক। আর তাদের সহযোগিতা করছেন স্থানীয় কতিপয় অসাধু ব্যক্তি। করোনাভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরোধে কর্তৃপক্ষ গত ১৭ মার্চ মাধবকুণ্ড ইকোপার্ক বন্ধ ঘোষণা করে। এরপরই প্রধান ফটকে তালা ঝুলিয়ে দেয় বন বিভাগ।

শুক্রবার বিকালে সরেজমিন দেখা গেছে, খুলনা, হবিগঞ্জ, নরসিংদী, শ্রীমঙ্গলসহ দেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে ৪-৫শ’ পর্যটক মাধবকুণ্ড ইকোপার্ক ও জলপ্রপাতের প্রধান ফটকে ভিড় করছেন। গেট তালাবদ্ধ থাকায় দল বেঁধে পর্যটকরা ঝুঁকিপূর্ণ পথে জলপ্রপাতে যাচ্ছেন। বাধা দিতে গিয়ে পর্যটন পুলিশের সদস্যরা নাজেহাল হচ্ছেন।

বড়লেখা ফরেস্ট কর্মকর্তা শেখর রঞ্জন দাস জানান, বর্তমান পরিস্থিতি জানিয়ে তিনি ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাকে চিঠি দিয়েছেন। প্রতিদিন ৩-৪শ’ পর্যটক সামাল দিতে বন বিভাগ ও পর্যটন পুলিশ হিমশিম খাচ্ছে।

পর্যটন পুলিশের এএসআই মোক্তার হোসেন জানান, বাধা-নিষেধ দিয়েও পর্যটকদের আটকাতে পারছেন না। বিভিন্ন পাহাড়ি পথে তারা জলপ্রপাতে ছুটে যাচ্ছেন। অনেক সময় উত্তেজিত পর্যটকরা তাদের লাঞ্ছিতও করছেন।

বন ও পরিবেশ মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, মন্ত্রণালয়ের স্থায়ী কমিটির সিদ্ধান্ত অনুযায়ী সবধরনের জনসমাগম রোধে অক্টোবর পর্যন্ত বন্ধ থাকবে মাধবকুণ্ড জলপ্রপাত ও ইকোপার্ক।

এ বিভাগের অন্যান্য