৬৪ জেলার মধ্যে ৫৫টিতে করোনার সংক্রমণ

গত ৮ মার্চ দেশে প্রথম করোনা আক্রান্ত রোগী শনাক্তের তথ্য প্রকাশের পর বুধবার (২২ এপ্রিল) দেশে শনাক্ত হওয়ার কোভিড-১৯ রোগী ৩৭৭২ জন। এদের মধ্যে গত ২৪ ঘণ্টায় শনাক্ত হয়েছেন ৩৯০ জন। মোট রোগীর মধ্যে মারা গেছেন ১২০ জন, এবং সুস্থ হয়ে ওঠেছেন ৯২ জন।

বাংলাদেশে এখন পর্যন্ত ৫৫ জেলায় মোট ৩ হাজার ৭৭২ জন কোভিড-১৯ আক্রান্ত হলেন। এর মধ্যে ঢাকা বিভাগেই আক্রান্তের হার ৭৩ শতাংশ।

বুধবার (২২ এপ্রিল) নভেল করোনাভাইরাস নিয়ে আয়োজিত স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের নিয়মিত স্বাস্থ্য বুলেটিনে এসব তথ্য জানান প্রতিষ্ঠানটির অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা।

অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা বলেন, গত ২৪ ঘণ্টায় নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে ৩ হাজার ৯৬টি। বাংলাদেশে এখন পর্যন্ত ১২০ জন কোভিড-১৯ আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন। গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ৫ জন। এখন পর্যন্ত ৯২ জন সুস্থ হয়েছেন।

গত ২৪ ঘণ্টার তথ্য জানিয়ে তিনি বলেন, যে ১০ জন মৃত্যুবরণ করেছেন তাদের মধ্যে পুরুষ সাত জন ও মহিলা তিন জন। এর মধ্যে সাতজন ঢাকার ভেতরে সাতজন ও তিনজন মারা গেছে যথাক্রমে ময়মনসিংহ, নারায়ণগঞ্জ ও টাঙ্গাইলে। এই ১০ জনের মধ্যে ষাটোর্ধ তিনজন, ৫১ থেকে ৬০ বছর বয়সসীমার মধ্যে দুইজন, ৪১ থেকে ৫০ বছর বয়সসীমার মধ্যে তিনজন ও ২১ থেকে ৩০ বছরের বয়সসীমার মধ্যে দুইজন মৃত্যুবরণ করেছেন।

তিনি বলেন, বাংলাদেশে এখন পর্যন্ত ৬৪ জেলার মধ্যে ৫৫ জেলায় কোভিড-১৯ সংক্রমণ পেয়েছি। এর মধ্যে ঢাকা শহরেই আক্রান্তের সংখ্যা বেশি এখনো। ঢাকা বিভাগেও এই হার বেশি। ঢাকা বিভাগের চারটি জেলায় আক্রান্তের হার বেশি। নারায়ণগঞ্জের মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৪৯৯ জন। যার মধ্যে সিটি করপোরেশন এলাকাতেই আছে ৩৬৪ জন। এই জেলায় এখন পর্যন্ত ৩৫ জন মৃত্যুবরণ করেছেন এবং সুস্থ হয়েছেন ১৬ জন।

এছাড়াও গাজীপুর, কিশোরগঞ্জ ও নরসিংদীতে আক্রান্তের সংখ্যা বেশি। ঢাকা বিভাগেই আক্রান্তের হার ৭৩ শতাংশ। এর অর্ধেক আছে ঢাকা শহর ও নারায়ণগঞ্জ, গাজীপুর ও নরসিংদীতে।

এ বিভাগের অন্যান্য