মুসলমানদের দমন করতে করোনাকে ব্যবহার করছে ভারত: অরুন্ধতী রায়

করোনা ইস্যুতে মুসলমানদের সঙ্গে ভারত সরকারের আচরণ গণহত্যার শামিল বলে মন্তব্য করেছেন বুকার জয়ী ভারতীয় উপন্যাসিক অরুন্ধতী রায়।

জার্মান সংবাদমাধ্যম ডয়েচে ভেলেকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি এ মন্তব্য করেন।

রাজনৈতিক অ্যাক্টিভিস্ট অরুন্ধতী রায় বলেন, বৈশ্বিক মহামারি করোনাভাইরাসকে হিন্দু এবং মুসলমানদের মধ্যে উত্তেজনা বাড়ানোর কাজে ব্যবহার করছে ভারত সরকার।

তিনি বলেন, ভারতের জাতীয়তাবাদী সরকার এই কৌশল ব্যবহার করে অসৎ উদ্দেশ্যে নিখুঁতভাবে এমন কিছু করতে যাচ্ছে যার প্রতি বিশ্বের নজর রাখা উচিত। হিন্দুপ্রধান দেশটির বর্তমান পরিস্থিতি গণহত্যার দিকে ধাবিত হচ্ছে বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

রায় বলেন, আমি মনে করি কোভিড-১৯ ভারতের এমন কিছু বিষয় ফুটিয়ে তুলেছে যা আমরা সবাই আগে থেকেই জানতাম। আমরা ভুগছি, তবে শুধু কোভিডে নয়, ঘৃণা এবং ক্ষুধা থেকে সৃষ্ট সংকটেও।

অরুন্ধতী রায় দাবি করেছেন, ভারত সরকার এমন এক কৌশলের জন্য ভাইরাসটির অপব্যবহার করছে যা গণহত্যার সময় নাৎসিদের ব্যবহৃত কৌশলগুলোর একটির কথা মনে করিয়ে দেয়।

তিনি বলেন, রাষ্ট্রীয় সেবক সংঘ (আরএসএস) হচ্ছে ভারতীয় জনতা পার্টির (বিজেপি) মাদারশিপ, যেটি দীর্ঘদিন ধরে বলে আসছে , ভারতের হিন্দু রাষ্ট্র হওয়া উচিত। এটির ভাবাদর্শে ভারতের মুসলমানদের সঙ্গে জার্মানির ইহুদিদের তুলনা করা হয়। তারা কীভাবে কোভিডকে ব্যবহার করছে আপনি যদি সেদিকে তাকান, তাহলে দেখবেন এটা অনেকটা ইহুদিদের যেভাবে আলাদা করতে, কলঙ্কিত করতে টাইফুসকে ব্যবহার করা হয়েছিল, সেরকম।

তবে বিজেপির পক্ষ থেকে অরুন্ধতী রায়ের এই বক্তব্যকে প্রত্যাখ্যান করা হয়েছে। দলটির মুখপাত্র নালিন কোহলি বলেছেন, অরুন্ধতী রায়ের বক্তব্য ‘বিভ্রান্তিকর, মিথ্যা এবং পুরোপুরি বর্ণবাদী।’

এ বিভাগের অন্যান্য