করোনা সন্দেহে মারা যাওয়া মহিলার দাফন-কাফন এর দায়ভার নিবে কে?

সিলেটে আইসোলেশনে থাকা করোনা সন্দেহে মারা যাওয়া মহিলার দাফন-কাফন সম্পন্ন হয়েছে ব্যতিক্রমভাবে।কিন্তু এখন এর দায়ভার নিবে কে?

আবু তালেব মুরাদঃ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত সন্দেহে সিলেটে আইসোলেশন ইউনিটে মৃত্যুবরণকারী যুক্তরাজ্যফেরত নারীর মুখের লালাসহ অন্যান্য স্যাম্পল সংগ্রহ করেছে ঢাকা থেকে আগত আইইডিসিআর টিম। গত রবিবার (২২ মার্চ) দুপুর ১২টায় ওসমানী হাসপাতালের চিকিসকদের সহায়তায় ওই নারীর স্যাম্পল সংগ্রহ করা হয়। স্যাম্পলগুলো ল্যাবে পরীক্ষার করার পর সোমবার নিশ্চিত হওয়া গেছে- ওই মহিলা করোনায় আক্রান্ত ছিলেন না।
লন্ডন ফেরত ৬১ বছর বয়স্ক ওই নারী গত ৪ মার্চ লন্ডন থেকে সিলেট ফেরেন। এরপর ১০ দিন ধরে জ্বর, সর্দি, কাশি ও শ্বাসকষ্টে ভুগছিলেন তিনি। গত ২০ মার্চ শহীদ শামসুদ্দিন আহমদ হাসপাতালে ভর্তি হন ওই নারী। অবস্থার উন্নতি না হওয়ায় তাকে আইসোলেশনে রেখেছিলেন চিকিসকরা।কিন্তু রোববার ভোরে মহিলার মৃত্যু হয়।
যেহেতু করোনাভাইরাসে মৃত্যু হিসাবে গণ্যকরে মহিলার দাফন কাফন সম্পন্ন করা হয়েছে অন্যভাবে।।কিন্তু এখন প্রাপ্ত রিপোর্ট অনুযায়ী করোনাভাইরাসে না এটি সাধারণ মৃত্যু। করোনা রোগীর মৃত্যুর দাফন কাফনের বা জানাজার লোক সমাগম ভিন্ন, এখন কি আর সম্ভব হবে পুনরায় ইসলামী সরিয়া মতো তা সম্পন্ন করা।
উল্লেখ্য। সিলেট শহীদ শামসুদ্দিন আহমদ হাসপাতালে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত সন্দেহে যুক্তরাজ্য প্রবাসী মহিলার মৃত্যু হয় রবিবার ভোর সাড়ে তিনটায়। ২২ শে মার্চ রোববার দুপুর দেড়টায় নগরীর মানিকপীর টিলাস্থ সিটি কর্পোরেশনের কবরস্থানে বিশেষ ব্যাবস্থায় তাকে দাফন করা হয়। এ সময় সিলেটের সিভিল সার্জন প্রেমানন্দ মণ্ডল ও মৃত নারীর পরিবারের ১ জন সদস্যসহ প্রশাসনের কিছু সংখ্যক কর্মকর্তারা ব্যতীত আর কাউকে দেখা জায়নি। এর আগে এসময় প্রশাসনের পক্ষ থেকে কড়া নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেওয়া হয়। ৬১ বছর বয়স্ক ওই নারী গত ৪ মার্চ লন্ডন থেকে সিলেট ফেরেন। এরপর ১০ দিন ধরে জ্বর, সর্দি, কাশি ও শ্বাসকষ্টে ভুগছিলেন তিনি। গত ২০ মার্চ শহীদ শামসুদ্দিন আহমদ হাসপাতালে ভর্তি হন জগন্নাথপুর উপজেলার ওই নারী। অবস্থার উন্নতি না হওয়ায় তাকে আইসোলেশনে রেখেছিলেন চিকিসকরা।

এ বিভাগের অন্যান্য