করোনার কথা শুনে হাসপাতাল থেকে নারী উধাও!

নিউজ ডেস্ক: করোনাভাইরাস সন্দেহের কথা শুনে সিলেটের নর্থইস্ট মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে থেকে এক নারী পালিয়ে গেছেন। রোগের বিস্তারিত শুনে চিকিৎসকরা করোনাভাইরাস সন্দেহ করার পরপরই পালিয়ে যান তিনি। ঐ নারী সম্প্রতি সৌদি থেকে দেশে ফিরেছেন।

মঙ্গলবার (১০ মার্চ) দক্ষিণ সুরমার নর্থইস্ট মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে এ ঘটনা ঘটে। এদিকেপালিয়ে যাওয়ার কয়েক ঘণ্টা পর তাকে খুঁজে পাওয়া গেছে।

হাসপাতাল সূত্র জানায়, মঙ্গলবার সকালে জ্বর নিয়ে হাসপাতালে আসেন মোগলাবাজার থানার ইসলামপুর গ্রামের এক নারী (৬০)। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসকরা তার রোগের বিস্তারিত শুনে ‘করোনাভাইরাস’ সন্দেহ করেন। একই সঙ্গে তাকে হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার পরামর্শ দেন। এ সময় চিকিৎসকরা ওই রোগীকে প্রয়োজনীয় কিছু পরীক্ষাও লিখে দেন। পরীক্ষা করানোর কথা বলে হাসপাতাল থেকে তিনি উধাও হয়ে যান। পরে ওই নারীর খোঁজ না পেয়ে সিলেটের সিভিল সার্জনকে বিষয়টি অবহিত করেন হাসপাতালের চিকিৎসকরা।

বিষয়টি নিশ্চিত করে সিলেটের সিভিল সার্জন ডা. প্রেমানন্দ মন্ডল বলেন, ওই নারী সপ্তাহখানেক আগে সৌদি থেকে দেশে আসেন। দেশে আসার পর তার জ্বর হলে হাসপাতালে যান। এ সময় তার কাছ থেকে রোগের বিস্তারিত তথ্য শুনে প্রবাসী হওয়ায় ‘করোনাভাইরাস’ আক্রান্ত সন্দেহে হাসপাতালে ভর্তি হতে বলা হয়। এরপরই হাসপাতাল থেকে ওই নারী পালিয়ে যান। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ রোগীর দেয়া তথ্য অনুযায়ী যোগাযোগ করলেও কোনো সাড়া মেলেনি।

তিনি বলেন, পরে আমরা ওই নারীর সঙ্গে কথা বলেছি। তার পরিবারের সদস্যদের সঙ্গেও কথা হয়েছে। তাকে পরামর্শ দেয়া হয়েছে তার সব পরীক্ষা-নিরীক্ষা করানোর জন্য। পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর তার যদি করোনা শনাক্ত হয় তাকে বাড়িতেই কোয়ারেন্টাইনে রাখা হবে। যদি তারা পরামর্শ না শোনেন তাহলে পুলিশি সহায়তায় তাকে নিয়ে আসা হবে।

এর আগে ২৯ ফেব্রুয়ারি দুবাই ফেরত এক যুবক করোনায় আক্রান্ত সন্দেহে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে কতৃপক্ষ জানায় তিনি এই রোগে আক্রান্ত নন।

এ বিভাগের অন্যান্য