ডিজিটাল হচ্ছে ওসমানী হাসপাতাল

নিউজ ডেস্ক: ডিজিটাল হচ্ছে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল। হাসপাতালের সকল রোগীর জন্য নির্ধারিত নম্বরের ভিত্তিতে সকল তথ্য সংরক্ষণ, সেবার ধরণ, রোগের ধরণসহ সকল প্রকার তথ্য এতে সংরক্ষণ থাকবে। শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের আইসিটি বিভাগের সহযোগিতায় সারা দেশের সকল হাসপাতাল ডিজিটালাইজেশনের আওতায় আনার লক্ষ্যে সরকারের ডিজিটাল এ পদ্ধতির শুরু হচ্ছে এম এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল থেকে বলে জানান তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহ্‌মেদ পলক।

মঙ্গলবার সকাল সারে ১১ টায় সিলেটের ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মিলনায়তনে এ উপলক্ষে মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথীর বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

জুনাইদ আহ্‌মেদ বলেন, ‘তথ্য একটি সম্পদ। তেল যেমন সম্পদ তেমনই একটি দেশের তথ্য একটি গুরুত্বপূর্ণ সম্পদ। তাই আমরা মাদের দেশের নাগরিকের সকল তথ্য একটি ডাটাবেজের আওতায় এনে সংরক্ষণ করতে চাই। মুজিব বর্ষ উপলক্ষে সরকার স্বাস্থ্য খাতে ডিজিটালের আওতায় এনে রোগীর সকল তথ্য সংরক্ষণের মাধ্যমে উন্নত চিকিৎসা নিশ্চিত করার উদ্যোগ নিয়েছে। এ লক্ষে আমরা প্রথমে পুণ্যভূমি সিলেটের ওসমানী মেডিকেল কলেজ থেকে কাজটি শুরু করতে চাচ্ছি।’

ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার ইউনুছুর রহমানের সভাপতিত্বে প্রতিমন্ত্রী আরো বলেন, ‘এর মাধ্যমে একটা রোগীর সকল তথ্য একটি ডাটাবেজের আওতায় থাকবে। রোগী কি ওষুধ খেয়েছেন, কি চিকিৎসা হয়েছে, তার রোগের ধরণ, হাসপাতালে কতদিন চিকিৎসাধীন ছিলেন সব কিছু এতে সংরক্ষণে থাকবে। তাতে ৫ বছর পরও চাইলে কোন রোগী তার সকল তথ্য হাসপাতাল থেকে পাবে। এতে একদিকে যেমন তথ্য সংরক্ষণ হবে তেমনই চিকিৎসা সেবা আর উন্নত হবে।’

এসময় এ প্রজেক্টের দায়িত্বে থাকা শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের আইসিটি বিভাগের পক্ষ থেকে একটি প্রেজেন্টেশনের মাধ্যমে কোন পদ্ধতিতে কি ভাবে এবং কি ধরণের তথ্য সংরক্ষণ করা হবে তা উপস্থাপন করা হয়।

এ বিভাগের অন্যান্য