সিলেটে লাখ টাকা ছিনতাই: আটক ১

নিউজ ডেস্ক: সিলেট মহানগর পুলিশের মোগলাবাজার থানাধীন কন্দিয়ারচর এলাকায় এক লাখ টাকা ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটেছে। এ ছিনতাইয়ের সাথে দুজন জড়িত। তন্মধ্যে পালিয়ে যাওয়ার সময় পুলিশ এক ছিনতাইকারীকে আটক করেছে। তবে টাকা নিয়ে পালিয়ে গেছে সিএনজি অটোরিকশা চালকের বেশে থাকা ছিনতাইকারী।

রবিবার দিবাগত গভীর রাত তিনটার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

আটক আলকাছ খা (৩৫) নগরীর কোতোয়ালী থানার কুমারপাড়া ঝর্ণারপাড় বসুন্ধরা-২৩নং বাসার আব্দুল জলিলের ছেলে। পালিয়ে যাওয়া আব্দুর রহমান (৩৫) নগরীর সোনাতলা এলাকায় পাতা মিয়ার কলোনির বাসিন্দা। তার বিস্তারিত পরিচয় জানতে পারেনি পুলিশ। ছিনতাইকাজে ব্যবহৃত সিএনজি অটোরিকশার নম্বর হলো সিলেট-থ-১২-২২৯৫।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন মোগলাবাজার থানার ওসি আখতার হোসেন।

পুলিশ জানায়, মোগলাবাজারের মাহমুদাবাদ গ্রামের রিপন মিয়া (২৫) পেশায় ট্রাকচালক। চারদিন ট্রাক চালিয়ে জমানো এক লাখ টাকা জমা করেন তিনি। টাকা নিয়ে নিজ বাড়িতে যাওয়ার জন্য রবিবার দিবাগত রাত ২টার দিকে ক্বিনব্রিজের দক্ষিণ পাশে গাড়ির জন্য অপেক্ষা করছিলেন রিপন। রাত ২টা ৪০ মিনিটের দিকে একজন যাত্রীসহ একটি সিএনজি অটোরিকশা এলে তিনি সেটিতে ওঠেন। মোগলাবাজারের কন্দিয়ারচর এলাকায় পৌঁছার পর অটোরিকশা থামিয়ে দেন চালক আব্দুর রহমান। এরপর পেছনে থাকা যাত্রীবেশী ছিনতাইকারী আলকাছ খা ও আব্দুর রহমান মিলে ছুরির ভয় দেখিয়ে সাথে যা আছে সব দিয়ে দিতে বলে রিপনকে। এতে রাজি না হলে রিপনের বুকের বাম পাশে ছুরিকাঘাত করেন আলকাছ। এতে জখম হন রিপন। এ সময় ছিনতাইকারীরা তার পকেটে থাকা এক লাখ টাকা ছিনিয়ে নিয়ে অটোরিকশাযোগে শহরের দিকে যেতে থাকে।

পুলিশ আরো জানায়, ঘটনাটি প্রত্যক্ষ করেন আরেক সিএনজি অটোরিকশাচালক মো. রাজা মিয়া (৩৪)। তিনি মোগলাবাজারের কোনারচর নৈখাই গ্রামের মৃত সোনা মিয়ার ছেলে। রাজা মিয়া নিজের অটোরিকশা নিয়ে ছিনতাইকারীদের ধাওয়া করে ‘ডাকাত ডাকাত’ বলে চিৎকার করতে থাকেন। মোগলাবাজারের খালোমুখ বাজারের কাছে থানার টহল দলের এসআই কামাল হোসেন অটোরিকশার পালিয়ে যাওয়া ও পেছনের আরেকটি অটোরিকশা থেকে ডাকাত ডাকাত চিৎকার শুনে বিষয়টি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে অবহিত করেন। পরে মোগলাবাজার থানার ওসি আখতার হোসেন, পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) ছাহাবুল ইসলামসহ অন্যরা ছিনতাইকারীদের অটোরিকশাকে ধাওয়া দেন। একপর্যায়ে মোগলাবাজারের সোনারগা আবাসিক এলাকার কাছে সিলেট-ফেঞ্চুগঞ্জ সড়কের পাশে অটোরিকশা ফেলে রেখে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে ছিনতাইকারীরা। ওই সময় আলকাছ খাকে আটক করে পুলিশ। তবে টাকা নিয়ে পালিয়ে যায় আব্দুর রহমান।

সিলেট মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার জেদান আল মুসা জানা, এ ঘটনায় রবিবার মামলা হয়েছে। পলাতক ছিনতাইকারীকে গ্রেফতারে অভিযান চলছে।

এ বিভাগের অন্যান্য