দুই ট্রেনের মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহত ১৫: সিলেটের সাথে রেলযোগাযোগ বন্ধ

নিউজ ডেস্ক: ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবা উপজেলার মন্দভাগ স্টেশন এলাকায় সিলেট থেকে চট্টগ্রামগামী আন্তঃনগর উদয়ন এক্সপ্রেস ও চট্টগ্রাম থেকে ঢাকাগামী তুর্ণা নিশিতা ট্রেনের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় ১৫জন নিহত হয়েছেন এবং আহত হয়েছেন ৭৪জন।

মঙ্গলবার (১২ নভেম্বর) রাত ৩টার দিকে দুর্ঘটনাটি ঘটে। দুর্ঘটনার পর ঢাকার সঙ্গে চট্টগ্রাম ও সিলেটের রেলযোগাযোগ বন্ধ রয়েছে।

কসবা উপজেলা নির্বাহী অফিসার মাসুদ উল আলম বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, মন্দভাগ রেলওয়ে স্টেশনে সিলেট থেকে চট্টগ্রামগামী আন্তঃনগর উদয়ন এক্সপ্রেস ও চট্টগ্রাম থেকে ঢাকাগামী তুর্ণা নিশিতা এক্সপ্রেস ট্রেনের সংঘর্ষ হয়। দুটি ট্রেনের কয়েকটি বগি লাইনচ্যুত হয়েছে।

এ ঘটনায় ১৫ জনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া ফায়ার সর্ভিসের উপ-সহকারী পরিচালক তানহারুল ইসলাম বলেন, ‘নিহত ১৫ জনের ভেতরে ৯ জনের মরদেহ স্পটে পাওয়া গেছে।

এছাড়া তিনজন কসবা মেডিকেল হাসপাতালে, দুই জন ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর হাসপাতালে এবং একজন কুমিল্লা মেডিকেল মারা যান।’

তিনি আরও বলেন, ‘আহত হয়েছেন ৭৪ জন। এদের মধ্যে ২৭ জন কসবা মেডিকেল হাসপাতালে, ৩৬ জন ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর হাসপাতালে, ১১ জন কুমিল্লা মেডিকেলে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।’

কমলাপুর রেলওয়ের স্টেশন ম্যানেজার মোহাম্মদ আমিনুল হক বলেন, ‘এ দুর্ঘটনার পর ঢাকা-চট্টগ্রাম এবং চট্টগ্রাম-সিলেটের সঙ্গে রেল যোগাযোগ বন্ধ রয়েছে।’

এ বিভাগের অন্যান্য