বইপড়া কর্মসূচি নিয়ে জেলা পরিষদ ও ইনোভেটর’র সমঝোতা

নিউজ ডেস্ক: মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাসের আলোয় স্নাত হয়ে বেড়ে উঠবে আমাদের আগামী প্রজন্ম- এই অভিন্ন প্রত্যাশায় যাত্রা শুরু হয়েছে ইনোভেটর এর আয়োজনে জেলা পরিষদ, সিলেট বইপড়া উৎসবের। এ উপলক্ষে জেলা পরিষদ, সিলেট এবং ইনোভেটর এর মধ্যে এক সমঝোতা সম্পাদিত হয়েছে।

সোমবার (২৮ অক্টোবর) দুপুর ১২টায় জেলা পরিষদের সভাকক্ষে এ সমঝোতা সম্পাদন অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।

এতে বক্তারা বলেন, বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন-আকাঙ্ক্ষার বাংলাদেশকে এগিয়ে নিতে জেলা পরিষদের কর্মউদ্যোগ আর ইনোভেটর এর চাওয়া একই সূত্রে গাঁথা।

তারা বলেন, মুক্তিযুদ্ধের স্বপ্ন কখনো বৃথা যেতে পারে না। আমাদের চারপাশে যতো অন্ধকার আছে তরুণদের-জ্ঞানের আলো দিয়ে সেই অন্ধকার দূর করতে হবে, মুক্তিযুদ্ধকে ভালোবাসা ছাড়া আর কোনো পথ নেই। আর বই হচ্ছে মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস জানার সবচেয়ে নির্ভরশীল মাধ্যম। তাই, আগামী দিনের বাংলাদেশকে নেতৃত্ব দেবে যে তারুণ্য, তাদেরকে বইয়ের কাছে ফিরে যেতে হবে, ইতিহাসের সত্যের কাছে যেতে হবে।

এসময় বক্তারা আশা প্রকাশ করে বলেন, জেলা পরিষদ এবং ইনোভেটর এর যৌথ স্বপ্নযাত্রা মুক্তিযুদ্ধের স্বপ্নের বাংলাদেশ বিনির্মাণে কাজ করে যাবে। এ যাত্রা হবে জ্ঞানের পথে, আলোর পথে।

অনুষ্ঠানে সমঝোতা সম্পাদন করেন জেলা পরিষদের পক্ষে চেয়ারম্যান এডভোকেট লুৎফুর রহমান, প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা দেবজিৎ সিংহ এবং ইনোভেটরের পক্ষে মুখ্য সঞ্চালক রেজওয়ান আহমদ এবং নির্বাহী সঞ্চালক প্রণবকান্তি দেব।

এরআগে ইনোভেটর এর সদস্যবৃন্দের পরিবেশনায় জাতীয় সংগীতের মাধ্যমে অনুষ্ঠান শুরু হয়। ইনোভেটটের সমন্বয়ক আশরাফুল ইসলাম অনির সঞ্চালনায় আরও বক্তব্য দেন সিলেট জেলা প্রেসক্লাবের সভাপতি তাপস দাশ পুরকায়স্থ, সিলেট প্রেসক্লাবের সভাপতি ইকরামুল কবির, ইমজার সভাপতি বাপ্পাঘোষ চৌধুরী। অনুষ্ঠান পর্যবেক্ষণ করেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সানজিদা চৌধুরী।

অনুষ্ঠানে সিলেটের বিভিন্ন গণমাধ্যমের সাংবাদিকবৃন্দ এবং সুধীসমাজের প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, ২০০৬ সাল থেকে ইনোভেটর তরুণ প্রজন্মের কাছে মহান মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস তুলে ধরার প্রত্যয় নিয়ে বইপড়া উৎসবের আয়োজন করে আসছে। দীর্ঘ এক যুগ বিভিন্ন ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানের বিচ্ছিন্ন সহযোগিতা পেলেও এবারই প্রথম কোনো প্রতিষ্ঠানের পূর্ণ সহযোগিতা পেল।

এ বিভাগের অন্যান্য