ওসমানীনগরে মাদরাসা শিক্ষকের ঘর ভাঙচুর, চার আসামি রিমান্ডে

নিউজ ডেস্ক:  সিলেটের ওসমানীনগরে মাদরাসা শিক্ষক আব্বাস আলী লেপাসের বসত ঘর ভাঙচুর করে উচ্ছেদের ঘটনায় দায়েরকৃত মামলায় কারাগারে থাকা মিজান এলাহির পক্ষের তাজ উদ্দিন মাস্টার, আছাদ চৌধুরী, পারভেজ মিয়া এবং বাবুল মিয়াকে একদিনের রিমান্ডে পেয়েছে পুলিশ। আদালতের অনুমতিতে শুক্রবার পুলিশ হেফাজতে রেখে তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে। আসামীদের জিজ্ঞাসাবাদে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পাওয়া গেছে বলে জানিয়েছেন মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই মনিরুল ইসলাম।

গত রোববার এই চার আসামীকে গ্রেপ্তারের পর আদালতে হাজির করে ৫ দিনের রিমান্ড চেয়ে আবেদন করেন মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা। বুধবার আবেদনের শোনানি শেষে একদিনের রিমান্ড আবেদন মঞ্জুর করেন আদালত।

উল্লেখ্য, শুক্রবার ওসমানীনগরের পূর্ব রুকনপুর গ্রামের মাদরাসা শিক্ষক আব্বাস আলীকে বসত ভিটা থেকে উচ্ছেদের উদ্দেশ্যে প্রতিপক্ষ মিজান এলাহির লোকজন তার বসত ঘর ভাঙচুর শুরু করে। আব্বাস আলী পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে ভাঙচুরকারী দু’জনকে আটক করে। এসময় পুলিশ আব্বাস আলী ও তার স্বজনদের মামলা দেয়ার কথা বলে থানায় নিয়ে আসে। কিন্তু নাটকীয়ভাবে আটক দু’জনকে ছেড়ে দিয়ে আব্বাস আলী ও তার স্বজনদের নামে সাজানো চাঁদাবাজি মামলা দিয়ে থানায় আটকে রেখে পুলিশের সহযোগিতায় ওই শিক্ষকদের বসত ঘর উচ্ছেদ করে মিজান এলাহির লোক। ঘটনাটি বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশ পেলে সর্বত্র সমালোচনা ও নিন্দার ঝড় উঠে। এর প্রতিবাদে রোববার এলাকাবাসী মানববন্ধন কর্মসূচী পালন করেন। ওই দিন থানার সমালোচিত ওসি এসএম আল মামুনের বদলির ঘোষণা আসার পর মিজান এলাহিসহ তার সহযোগীদের আসামী করে একটি মামলা দায়ের হয়। পুলিশ রাতেই অভিযান চালিয়ে চার জনকে গ্রেপ্তার করে।

এ বিভাগের অন্যান্য