সর্বশেষ
মাধবপুরে সাজাপ্রাপ্ত আসামি গ্রেপ্তার         ‘সাদা পাথর’ ট্যুরিস্ট বাস চালু         গাজীপুরে ফ্যান কারখানায় আগুন, নিহত ১০         চার লেন হচ্ছে সিলেট-তামাবিল সড়ক         দক্ষিণ সুরমায় ইয়াবাসহ আটক ২         দিরাইয়ে দুই পক্ষের সংঘর্ষ: নিহত ১         শ্রীমঙ্গলে দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা         শায়েস্তাগঞ্জে সিএনজি ও পুলিশ ভ্যানের সংঘর্ষ: আহত ৫         নগরীর বন্দরবাজারে আসামী গ্রেফতার         মেজরটিলায় জালনোট ও ইয়াবাসহ ২জন আটক         হবিগঞ্জে সুদের জালে সর্বশান্ত অনেকেই, দিচ্ছেন আত্মাহুতি         তাহিরপুরে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে ২ লাখ টাকার ক্ষতি         বিনম্র শ্রদ্ধায় শহীদ বুদ্ধিজীবীদের স্মরণ করছে জাতি         হবিগঞ্জে সড়ক দূর্ঘটনায় শ্রমিকের মৃত্যু         নগরে ডিজিটাল বাংলাদেশ দিবস উপলক্ষে র‍্যালি-আলোচনা        

হবিগঞ্জে লবন নিয়ে লঙ্কাকাণ্ড, ৪ জনের জেল-জরিমানা

হবিগঞ্জ প্রতিনিধি: হবিগঞ্জ শহরে বাজারে লবণের কৃত্রিম সংকট সৃষ্টির চেষ্টা ও অতিরিক্ত মূল্যে লবন বিক্রির অপরাধে ৪ জনকে কারাদণ্ড ও অর্থদণ্ড  দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। এর মধ্যে দুই ব্যক্তিকে ১০ দিনের কারাদণ্ড ও দুইজনকে অর্থদণ্ড দেয়া হয়।

মঙ্গলবার (১৯ নভেম্বর) দিনগত রাত ১টার দিকে হবিগঞ্জের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ইয়াছিন আরাফাত রানা এই দণ্ডাদেশ প্রদান করেন ।

দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন- শহরের রাজনগর এলাকার ব্যবসায়ী মো. আব্দুল কাদির নানু, বাতিরপুর এলাকার কানাই দাসের ছেলে সুরঞ্জিত দাস, চৌধুরী বাজার এলাকার রাজকুমার রায়ের ছেলে মিঠুন রায় ও নোয়াহাটি এলাকার রবিন্দ্র পালের ছেলে রঞ্জিত পাল।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ইয়াছিন আরাফাত রানা বলেন- আটককৃতরা বাজারে লবনের কৃত্রিম সংকট সৃষ্টির চেষ্টা করছিল। এ সময় অভিযান চালিয়ে ৬জনকে আটক করা হয়। পরে যাচাবাচাই করে চারজনকে দণ্ড দেয়া হয়। বাকি দুইজনের বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণীত না হওয়ায় মুছলেকায় ছেড়ে দেয়া হয়। দণ্ডপ্রাপ্তদের মধ্যে আব্দুল কাদির নানু ও সুরঞ্জিত দাসকে ১০ দিন করে কারাদণ্ড দেওয়া হয়। এছাড়া  মিঠুন রায় ও রঞ্জিত পালকে ২ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। তারা দুইজন ৫০ টাকা কেজি দরে লবন বিক্রির করছিলেন। এ সময় ব্যবসায়িদের মজুদ রাখা প্রায় ২০ বস্তা লবণ জব্দ করে ভ্রাম্যমান আদালত।

এর আগে সোমবার রাত ৮টার পর হঠাৎ করে হবিগঞ্জে গুজব ছড়ানো হয় লবণের দাম বৃদ্ধি পাচ্ছে। এতে ব্যবসায়ি ও ক্রেতাদের মধ্যে উত্তেজনা দেখা দেয়। ব্যবসায়ীরা লবণ মজুদ করতে শুরু করেন। অন্যদিকে ক্রেতাদের মধ্যেও লবন কিনকে হুলুস্তুল সৃষ্টি হয়।






Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *