সর্বশেষ
গ্রেফতারের ঘণ্টাখানেক পরেই মুক্ত ভিপি নুর         দক্ষিণ আফ্রিকায় অলৌকিকভাবে বেঁচে গেল ৫০০ গ্রাম ওজনের শিশু         সাপের কামড়ের পর ঝাড়ফুঁক, মারা গেল শিশু         ৭২তম এমি অ্যাওয়ার্ডস বিজয়ী যারা         দুই শর্তে ১৬ অক্টোবর খুলছে সব সিনেমা হল         ইংল্যান্ডের মাঠে শাহিন আফ্রিদির রেকর্ড         ‘আমি সব ফরম্যাটে খেলতে চাই’         ভিপি নুর গ্রেফতার         ‘সিরিয়া থেকে তেল চুরি করে নিয়ে যাচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র’         স্বাস্থ্য অধিদফতরের কোটিপতি সেই মালেক ড্রাইভার বরখাস্ত         স্বাস্থ্যের ২০ জনের সম্পদের হিসাব তলব         স্বেচ্ছাসেবক দলের কেন্দ্রীয় কমিটিতে উপদেষ্টা হলেন ২৭ জন         ট্রাম্পকে বিষ মাখানো চিঠি, সন্দেহভাজন নারী গ্রেফতার         অ্যান্টিজেন টেস্টের অনুমতি দিল স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়         ইমরানকে হটাতে ফের একজোট বিরোধীরা, আন্দোলনের ঘোষণা        

এবার নদীতে ফেলা হচ্ছে পেঁয়াজ!

নিউজ ডেস্ক: আড়তে বিপুল পেঁয়াজ সংগ্রহে রেখে বেশি দামে বিক্রির আশা অনেকের ভেস্তে গেছে সোনার দামে কিনা হরিণ।
আর প্রতিদিন পাল্লা দিয়ে বাড়ছে পেঁয়াজের দাম। এখন প্রতিকেজি পেঁয়াজের দাম ২০০-২৫০ টাকা। অস্বাভাবিকভাবে দাম বৃদ্ধির জন্য পেঁয়াজের সরবরাহ ঘাটতির কথা বলছেন ব্যবসায়ীরা।

কয়েকটি আড়তে পচে যাওয়া মিয়ানমারের পেঁয়াজ ফেলে দেওয়া হচ্ছে নদীতে-ভাগাড়ে। গতকাল শুক্রবার (১৫ নভেম্বর) সন্ধ্যার পর চট্টগ্রাম নগরের ফিরিঙ্গি বাজার ব্রিজঘাট এলাকায় ১০-১৫ বস্তা পচা পেঁয়াজ কর্ণফুলী নদীতে ফেলে দেওয়া হয়।

এর আগে বৃহস্পতিবার (১৪ নভেম্বর) রাতে খাতুনগঞ্জে সিটি করপোরেশনের ময়লার ভাগাড় থেকে প্রায় ২০ টন পচা পেঁয়াজ সরিয়েছেন পরিচ্ছন্নতা কর্মীরা।

আজ শনিবার (১৬ নভেম্বর) খাতুনগঞ্জের কয়েকটি আড়তে গিয়ে দেখা যায়, বস্তাভর্তি পেঁয়াজ পচে মাটিতে পড়ে আছে। দুর্গন্ধ ছড়াচ্ছে এলাকায়। শ্রমিকরা এসব পেঁয়াজ ভাগাড়ে নিয়ে ফেলছেন।

জানা গেছে, মিয়ানমার থেকে বাংলাদেশে আসতে বেশি সময় লেগে যাওয়ায় গরমে পেঁয়াজ পচে যাচ্ছে। যেগুলো ভালো থাকছে, সেগুলোরও মান কমে যাচ্ছে। এতে আমদানিকারকরা লোকসানে পড়ছেন।

খাতুনগঞ্জ ট্রেডিংয়ের মালিক আবুল বশর বলেন, খাতুনগঞ্জে ১৫ থেকে ২০টি পেঁয়াজের আড়ত আছে। মিয়ানমার থেকে পেঁয়াজ এখানে আসতে এক সপ্তাহের বেশি সময় লেগে যায়। এরপর আড়তে রাখা পেঁয়াজ দ্রুত পচে যাচ্ছে। প্রতিটি আড়তে প্রতিদিন গড়ে ১০০ থেকে ১৫০ বস্তা করে পেঁয়াজ নষ্ট হয়ে যাচ্ছে।

কর্ণফুলী ব্রীজ ঘাট এলাকার স্থানীয়রা জানান, খাতুনগঞ্জ থেকে বস্তাভর্তি পচা পেঁয়াজ কম দামে কিনে কয়েকজন ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী নদীর পাড়ে শুকাতে দেন। এরপর অধিকাংশ নষ্ট পেঁয়াজ সেখানে ফেলে দেওয়া হয়। তুলনামূলক ভালো পেঁয়াজ প্রতি কেজি ১০০-১২০ টাকায় স্থানীয় হোটেল-রেস্টুরেন্টে বিক্রি করে দেওয়া হচ্ছে।






Related News

  • অ্যান্টিজেন টেস্টের অনুমতি দিল স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়
  • জাতিসংঘ অধিবেশনে ভ্যাকসিন ও রোহিঙ্গা ইস্যুতে আলোচনা হবে
  • ‘মাস্ক পরা নিশ্চিত করতে যেকোনো সময় মার্কেট-শপিংমলে অভিযান’
  • সফটওয়্যার আপগ্রেড হলেই প্রাথমিক শিক্ষকদের উচ্চধাপে বেতন
  • নৃত্যশিল্পী ইভান ৭ দিনের রিমান্ডে
  • বড়াইগ্রামে মুক্তিযোদ্ধা আয়নাল হত্যায় দুই আসামির মৃত্যুদণ্ড
  • প্রেম প্রত্যাখ্যান করায় কিশোরীকে ছিনিয়ে নিয়ে হত্যা
  • স্বাস্থ্য অধিদফতরের মালেক ড্রাইভার যেভাবে বিপুল সম্পত্তির মালিক
  • Leave a Reply

    Your email address will not be published. Required fields are marked *