সোমবার, ১৮ ফেব্রু ২০১৯ ০৪:০২ ঘণ্টা

একুশে গ্রন্থমেলায় “মৃন্ময়ী কাব্যগ্রন্থ’র মোড়ক উম্মোচন ২২ফ্রেব্রুয়ারী

একুশে গ্রন্থমেলায় “মৃন্ময়ী কাব্যগ্রন্থ’র মোড়ক উম্মোচন ২২ফ্রেব্রুয়ারী

সিলেট বইমেলা থেকে মৃন্ময়ী কাব্যগ্রন্থ এখন জাতীয় গ্রন্থমেলায়
স্টাফ রিপোর্ট:
বাঙালির গৌরব আর অহংকারের মাস ফেব্রুেয়ারি উপলক্ষে সিলেট কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার প্রাঙ্গণে শুরু হওয়া ‘প্রথমআলো বন্ধুসভা’ । শুক্রবার বইমেলা শেষে হয়েছে। এদিকে সিলেটে বই মেলা শেষ হলেও পুরোমাস জুড়ে জাতীয় একুশে গ্রন্থমেলা চলবে। সিলেটে অনুষ্ঠিতব্য স্বল্পদিনের জন্য ‘প্রথমআলো বন্ধুসভা বইমেলায় অনুষ্ঠিত হয়। উক্তমেলায় পাঠকের চাহিদা বাড়ায়, তরুন কবি লেখক ও সরকারী কর্মকর্তা মোঃ মিজাহারুল ইসলামএর প্রথম কাব্য গ্রন্থ ‘মৃন্ময়ীটি ঢাকার বইমেলায় পাওয়া যাবে বলে জানিয়েছেন বইটির লেখক। তিনি জানান তাঁর এই গ্রন্থটি মেলায় প্রথম দিন থেকে পাঠকের নজর কড়েছে বলে জানিয়েছেন বিক্রেতারা। সেই সুবাধে নতুন প্রকাশনায় আজ ১৯ ফেব্রুয়ারী থেকে জাতীয় গ্রন্থমেলায় আফসার ব্রাদার্স এর ৫২১-৫২৪ নাম্বার স্টলে পাওয়া যাবে। এছাড়া লেখক নিজে থাকবেন বলে জানিয়েছেন। “মৃন্ময়ী গ্রন্থটি” আগামি ২২তারিখ বিকেল ৫-৩০ মিনিটে জাতীয় গ্রন্থমেলায় মোড়ক উম্মোচন করবেন বিশিষ্ঠ কবি” নির্মলেন্দু গুণ ও জনপ্রিয় লেখক ও শিক্ষাবিদ . মুহম্মদ জাফর ইকবাল । এছাড়া এ অনুষ্ঠানে দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে বিশিষ্ঠজনেরা উপস্থিত থাকবেন বলে জানিয়েছে মোড়ক উম্মোচন পরিষদ। জানাযায় গ্রন্থমেলায় প্রকাশিত হতে যাওয়া তরুন কবি লেখক ও সরকারী কর্মকর্তা মোঃ মিজাহারুল ইসলামএর প্রথম কাব্য গ্রন্থ ‘মৃন্ময়ী। সমকালীন বিভিন্ন বিষয়ের রচনা সংকলন । বইটিতে কবি তার কবিতা গ্রন্থের স্থান দিয়েছেন নদী, মা, বৃক্ষ, পাখি, কল্লোলিত জীবন, জন্মগ্রাম, মৃত্তিকা,এছাড়া সমসাময়িক বিষয় নিয়ে উঠেছে দেশ, মা ও মাটিসহ বিবিধ বিষয়। প্রায় অর্ধশত কবিতা সন্নিবেশিত করা হয়েছে। মোঃ মিজাহারুল ইসলাম জন্ম নেত্রকোনা জেলার কেন্দুয়া উপজেলার কাউরাট গ্রামে। তাঁর জন্ম ১৯৮৬ সালের পহেলা মার্চ। তিনি মরহুম সোনা মিয়া ও সাজেদা আক্তার এর কনিষ্ঠতম সন্তান। নেত্রকোনা জেলার কেন্দুয়া উপজেলার কাউরাট সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে তাঁর শিক্ষা জীবনের হাতেখড়ি। মোঃ মিজাহারুল ইসলাম যথাক্রমে ২০০১ সালে কেন্দুয়া জয়হরি স্প্রাই সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এসএসসি ও কেন্দুয়া ডিগ্রি কলেজ থেকে এইচএসসি পাশ করেন। তিনি ২০০৮ সালে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পদার্থ বিজ্ঞান বিষয়ে স্নাতক (সম্মান) ডিগ্রি অর্জন করেন। পরবর্তিতে ২০১৫ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সমাজ বিজ্ঞান অনুষদ থেকে মাস্টার ইন গর্ভনেন্স স্টাডিজে স্নাতকোত্তর ডিগ্রি লাভ করেন। ২০১২ সালে ব্যাংক কর্মকর্তা হিসেবে কর্মজীবন শুরু করলেও বর্তমানে তিনি সাব-রেজিস্ট্রার পদে কমর্রত। তাঁর স্ত্রী উম্মে সালিক রুমাইয়া একজন উচ্চপদস্থ সরকারি কর্মকর্তা। মো. মিজাহারুল ইসলাম ও উম্মে সালিক রুমাইয়া দম্পতির একমাত্র কন্যা মাহজাবিন সায়র মৃন্ময়ী। বহুমুখী প্রতিভার অধিকারী মোঃ মিজাহারুল ইসলাম তার ‘মৃন্ময়ী ‘ বইয়ে মনের মাধুরী দিয়ে এঁকেছেন সমসাময়িক বিষয়াবলী নিয়ে সামাজিক, রাজনৈতিক মানবিক সম্পর্ক তিনি প্রতিপাদ্য বিষয় করেছেন। কবিতা মহৎ শিল্প। এর মধ্যে উৎসারিত হয় জীবন বোধ, অভিজ্ঞতা ও হৃদস্পন্দন। ‘মৃন্ময়ী কবিতা গ্রন্থে মোঃ মিজাহারুল ইসলাম বিশেষ গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছেন। তার কবিতার বিষয় বৈচিত্র ও আঙ্গিকে মহুমাত্রিক পরিবর্তন সূচিত হয়েছে। কবিতার বই ‘ ‘মৃন্ময়ী ’ তার লেখা প্রথম মৌলিক গ্রন্থ। যেটা এবার ‘আফসার ব্রাদার্স ’ থেকে প্রকাশিত হচ্ছে এবং জাতীয় গ্রন্থমেলা ৫২১-৫২৪ নং স্টলে পাওয়া যাবে। দেশাত্মবোধক ও বাংলা সাহিত্যর সৃজনশীলতাকে যারা ভালোবাসেন যারা তাদেরকে বইটি সংগ্রহ করার জন্য আহ্বান জানিয়েছেন কবি ও লেখক মোঃ মিজাহারুল ইসলাম

সর্বশেষ সংবাদ

পাঠক

Flag Counter