বৃহস্পতিবার, ২৪ জানু ২০১৯ ০৯:০১ ঘণ্টা

হাজারো স্বপ্ন নিয়ে আসা শিক্ষার্থীদের পদচারণায় মুখরিত মুহিবুর রহমান একাডেমি

হাজারো স্বপ্ন নিয়ে আসা শিক্ষার্থীদের পদচারণায় মুখরিত মুহিবুর রহমান একাডেমি

ক্যাম্পাস প্রতিবেদক:

সিলেটের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে ছুটে আসা শিক্ষার্থীরা বুক ভরা আশা নিয়ে ভর্তি হচ্ছে এবার,হযরত শাহজালাল (রহ) মাজার সংলগ্ন সিলেটের মধ্যে সবচেয়ে আধুনিক প্রযুক্তি সমৃদ্ধ মানসম্মত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান মুহিবুর রহমান একাডেমিতে। জানাযায়,যে স্কুলটি প্রতিষ্ঠার পর থেকে সকল পাবলিক পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে সাফল্যের রেকর্ডও গড়ে চলছে। সবমিলিয়ে হাটি হাটি পা পা করে সফলতার ৭ বছর ধরে,অভিভাবকদের আস্থা এবং বিশ্বাসের প্রতীক হয়ে এগিয়ে চলছে তাঁর আপন মহিমায়। সময়ের পালাবদলে এবার নতুন বছরে নতুন স্বপ্ন নিয়ে কোলাহলমুক্ত পরিবেশে ,অনেক শিক্ষার্থীদের  প্রথম স্কুল জীবন শুরু হয়েছে এ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে। জানাযায়, প্রতি বছরের মতো এবারো প্লে থেকে নবম শ্রেণিতে ভর্তি হয়েছে প্রায়, ৮শতাধিক শিক্ষার্থী। পুরোপুরি ভর্তি কার্যক্রম শেষ না হলেও নিয়মতান্ত্রিকভাবে চলছে  ক্লাসের কার্যক্রম। সরেজমিনে ঘুরেদেখা যায়। নতুন পুরাতন শিক্ষার্থীদের পদচারনায় এরই মধ্যে ক্যাম্পাস ভরে গেছে। রাতপোহালেই প্রতিদিন মুখরিত হচ্ছে একাডেমির আঙ্গিনা। শীতের মৌসুম হলে ও সকাল বেলা এসেম্বলীতে পুরো ক্যাম্পাস যেন, জাতীয় সঙ্গিতে ছাত্রছাত্রীর কন্ঠে ভেসে ওঠে দেশাত্ববোধক মর্মবাণী। আর সেখানেই নতুন কেতন উড়ে স্বপ্নের  বিভোর হয়ে ওঠে প্রতিটি অবয়ব। এছাড়া দেখাযায়,টিফিনের ফাঁকে ফাঁকে নতুন পুরাতন- শিক্ষার্থীরা স্কুল ক্যাম্পাসের বিশাল প্রাঙ্গনে, মনের মাধুরী মিশিয়ে আড্ডা দিচ্ছে । বয়স ছোট হলে ও তাদের আড্ডার মাঝে ভেসে ওঠে সৃজনশীল কেমেস্টি । এছাড়া বিভিন্ন জায়গায় চলে নবীন প্রবীণ শিক্ষার্থীদের মিলন মেলার পরিচয় পর্ব। পরিচয় পর্বের সাথে চলে,খুনসুটি  গল্প ও অভিনয়। বলা বাহুল্য, শিক্ষার্থীদের পদচারণায়  পুরো ক্যাম্পাসে যেন খুঁজে পেয়েছে প্রাণের স্পন্দন। মুহিবুর রহমান একাডেমিতে ভর্তি হওয়া নতুন শিক্ষার্থী সাফা কবির বলেন, নতুন বছরে নতুন ক্যাম্পাস ভালোই লাগছে। নতুন বন্ধুদের সাথে আড্ডা দেওয়া , একসাথে ক্লাস করা খুব ইনজয় করছি। এখানে সবাই আন্তরিক। শিক্ষকরা বিভিন্নভাবে আমাদের উৎসাহিত করছে। ইংরেজী মাধ্যমের আরেক নবীন শিক্ষার্থী শাকিল বলেন, আমার মনের আশা পূরণ হয়েছে। মুহিবুর রহমান একাডেমিতে ভর্তি হয়ে। আমার স্বপ্ন ছিল, এখানে ভর্তি হওয়া। এছাড়া স্কুুলের স্যার ও ম্যাডামরা অনেক  আনন্দর সহিত পড়ান। এখানে ভর্তি হতে পেরে খুব ভালো লাগছে। স্কুুৃলের নতুনত্বময় পরিবেশ ভালোই লাগছে। একাডেমির শিক্ষকরা বলেন, সফলতা এমন একটি জিনিস, যা প্রতিটি মানুষের চাহিদার অন্যতম অংশ দখল করে থাকে। ২০১২ সাল থেকে পরিপূর্ণ শিক্ষার একটা সামগ্রিক ধারণা নিয়ে সিলেটের দরগামহল্লাস্থ পথচলা শুরু করে মুহিবুর রহমান একাডেমি। সফলতার সিঁড়ি বেয়েই এই একাডমি একটি পরিপূর্ণ সিলেটের আদর্শ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান হিসেবে বিবেচিত রয়েছে তারা মনে করেন। একাডেমর প্রিন্সিপ্যাল রোটারিয়ান মুহাম্মদ শামছ উদ্দিন বলেন,সময়ের সঙ্গে তাল মিলিয়ে কীভাবে এগিয়ে যেতে হয় তার বিরল দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে মুহিবুর রহমান একাডেমিে প্রতিষ্ঠাতা ও চেয়ারম্যান শিক্ষাবিদ মুহিবুর রহমান। তিনি উদ্যোগ নিয়েছিলেন মুহিবুর রহমান একাডেমিকে ডিজিটাল ক্যাম্পাসে রূপ দেওয়ার, এবং সেই কাজটি করে দেখিয়েছেন সর্বোচ্চ দুই বছরের ব্যবধানে। তিনি বলেন,নতুন প্রজন্মকে প্রযুক্তিনির্ভর আধুনিক শিক্ষায় শিক্ষিত করার কাজটি প্রাথমিক স্তর থেকেই শুরু করাসহ, ‘মুহিবুর রহমান একাডেমি’ অত্যাধুনিক যুগোপযোগী এবং একটি আদর্শ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান হিসেবে খ্যাতির শিখরে পৌঁছে দেওয়ার লক্ষে আমরা কাজ করতে চাই। তিনি জানা এই স্কুলের স্লোগান হচ্ছে। মেধা তোমাদের নিদের্শনা আমাদের সফলতা গোটা জাতির।

সর্বশেষ সংবাদ

পাঠক

Flag Counter