শুক্রবার, ৩০ নভে ২০১৮ ০১:১১ ঘণ্টা

সিলেট ৫ আসনে সম্ভাব্য প্রার্থী শরীফ আহমদ লস্করের চোখ সংসদের দিকে

সিলেট ৫ আসনে সম্ভাব্য প্রার্থী শরীফ আহমদ লস্করের চোখ সংসদের দিকে

গ্রামীন জনঘোষ্ঠির জন্য কর্মমুখি শিক্ষা, উন্নত যোগাযোগব্যবস্থা, শোষণমুক্ত ও বৈষম্যহীন সমাজ নির্মাণ, সম্প্রীতির রাজনীতি, সবুজ বনায়ন, পর্যটন শিল্পসহ সকল ক্ষেত্রে দীর্ঘ মেয়াদী পরিকল্পনা বাস্তবায়নের স্বপ্ন তার। তিনি হলেন এবারের জাতীয়

সংসদ নির্বাচনে সিলেট ৫ আসনের শক্তিশালী প্রার্থী। সম্প্রতি সিলেট প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করে  একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সিলেট-৫ আসন থেকে ধানের শীষের মনোনয়ন চান শরীফ আহমদ লস্কর। তিনি বিশিষ্ট তরুণ সমাজসেবক ও যুক্তরাষ্ট্র নিউয়র্ক বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা, সিলেটের জকিগনজ উপজেলা বিএনপির সাবেক আহবায়ক সভাপতির দায়িত্ব পালন করেছেন অত্যন্ত দক্ষতার সাথে। আজ সিলেট ৫ আসন জকিগন্জ কানাইঘাট এর ধানের শীষ’র  সম্ভাব্য প্রার্থী হিসেবে শরীফ আহমদ লস্কর  মনোনয়ন সংগ্রহ করে জমা ও দিয়েছেন বলে জানান তিনি ও তার অনুসারীরা। তবে জানা যায় শরীফ আহমদ লস্কর সঠিক সময়ের অপেক্ষায় রয়েছেন।  এছাড়া তিনি দীর্ঘদিন যাবত সাধারণ মানুষের কল্যাণের জন্য কাজ করে যাচ্ছেন। এবার দলীয় মনোনয়ন পেতে একাধারে তার পক্ষে উপজেলা বিএনপি ও তৃণমূল নেতাকর্মীদের সঙ্গে নিয়ে দিনরাত  উপেক্ষা করে প্রচার-প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন । শরীফ আহমদ লস্কর আসন্ন একাদশ সংসদ নির্বাচনে এই প্রতিবেদক কে বলেন সিলেট ৫ আসনের জনগণের জীবনযাত্রার মানোন্নয়নে দীর্ঘমেয়াদী পরিকল্পনা রয়েছে তার। তিনি উপজেলা ইউনিয়ন ও গ্রামীন জনঘোষ্ঠির জন্য কর্মমুখি শিক্ষা, উন্নত যোগাযোগব্যবস্থা, শোষণমুক্ত ও বৈষম্যহীন সমাজ নির্মাণ, সম্প্রীতির রাজনীতি, সবুজ বনায়ন, পর্যটন শিল্পসহ সকল ক্ষেত্রে দীর্ঘ মেয়াদী পরিকল্পনা বাস্তবায়নের জন্য আসন্ন নির্বাচনে সকলের সহযোগিতা কামনা করেন। শরীফ আহমদ  বলেন আরেকবার মনোনয়ন বোর্ডের পছন্দের শীর্ষে থাকলে ও তিনি দলের কারনে ছাড় দিয়েছিলেন বলে জানান।এছাড়া এবারের নির্বাচন ভিন্নমুখী হওয়ার ফলে সংসদ নির্বাচনে মনোনয়নের মাঠে সরব তিনি।এলাকার নবীন প্রবীণ ভোটাররা  জানান লস্কর ক্লীণ ইমেজে মানুষ দীর্ঘদিন ধরে সামাজিক ও বিএনপির আদর্শে সঙ্গে যুক্ত থাকায় তিনি জনগণের পছন্দের প্রার্থী হিসেবে রয়েছেন। সিলেট-৫ আসনকে আধুনিক গড়ার প্রত্যয়ে একাদশ সংসদ নির্বাচন তাকে বিএনপির তথা ঐক্যফ্রন্টের মনোনয়নের জন্য  জোড় দাবী ও আশা ব্যক্ত করেন তারা। সে প্রত্যাশায় গণসংযোগে  তার পক্ষে তারা ব্যস্ত রয়েছেন । এছাড়া তিনি বিগত আমলে বিএনপির উন্নয়ন কার্যক্রম সাধারণ মানুষের কাছে তুলে ধরার লক্ষ্যে কাজ করছেন। পাশাপাশি গ্রামের সাধারণ মানুষের সঙ্গে মতবিনিময়, উঠান বৈঠক ও গণসংযোগে ব্যস্ত সময় পার করছেন। এদিকে বিএনপির মনোনয়ন জমা দিয়ে আমাদের প্রতিবেকের সাথে একান্তে কথা বলেছেন যা পাঠকের জন্য তুলে ধরেছেন সিলেটের সময়ের সিনিয়র প্রতিবেদক

সিলেটের সময়: একাদশ সংসদ নির্বাচন নিয়ে আপনাদের প্রস্তুতি কেমন?

শরীফ আহমদ লস্কর: সরকারের দমন-পীড়নে আমরা অতিষ্ঠ। আওয়ামী লীগ তাদের ক্ষমতার গত দুই পর্বে আমাদের নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে শত শত মামলা দিয়েছে। এ অবস্থায় সাংগঠনিকভাবে প্রার্থীরা নির্বাচনের প্রস্ততি নিয়ে জনসংযোগ করে যাচ্ছেন। তাতে ব্যাপক সাড়াও পাচ্ছেন।

সিলেটের সময়:দলে কোন্দল আছে বলে অভিযোগ রয়েছে। এর প্রভাব কি নির্বাচনে পড়বে?

শরীফ আহমদ লস্কর: বিএনপির মতো বড় দলে কিছুটা মতপার্থক্য থাকবে, এটাই স্বাভাবিক। কিন্তু দলে কোন্দল নেই। প্রার্থী মনোনয়ন চূড়ান্ত হলে সব মতপার্থক্য দূর হয়ে যাবে।

সিলেটের সময়: অনেকে বলছেন আপনাদের সাংগঠনিক দুর্বলতাও রয়েছে। সে ক্ষেত্রে নির্বাচনে কিভাবে মোকাবেলা করবেন?

শরীফ আহমদ লস্কর: আমাদের জেলা কমিটি আছে। কিছু কিছু উপজেলা কমিটিও হয়েছে। এটা ঠিক তৃণমূল পর্যায়ে আমরা কমিটি করতে পারিনি। তবে মনে রাখতে হবে, আমাদের বড় শক্তি হচ্ছে জনগণ। সিলেট ৫ আসন  হচ্ছে বিএনপির ঘাঁটি। এই জনগণই আমাদের সাংগঠনিক দুর্বলতাকে পার করিয়ে দেবে।

সিলেটের সময়: বিএনপিকে কেন জনগণ ভোট দেবে বলে আপনি মনে করেন?

শরীফ আহমদ লস্কর : বর্তমান সরকার ভোটারবিহীন নির্বাচন করে ক্ষমতা নিয়েছে। জনগণ এটা ভালো করে জানে। জোর করে ক্ষমতায় থাকলেও জনগণের উন্নয়ন করতে পারেনি সরকার। মানুষকে নিরাপত্তা দিতে পারেনি। আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ে জনসাধারণ অসন্তুষ্ট। এসব কারণে স্বাভাবিকভাবেই মানুষ বিএনপিকে ভোট দেবে।

সিলেটের সময়:ক্ষমতায় এলে প্রথমে প্রথমে কোন কাজগুলো করবেন আপনারা ?

শরীফ আহমদ লস্কর : ক্ষমতায় এলে আমাদের প্রথম কাজ হবে আইনের শাসন প্রতিষ্ঠা করা। কারণ বর্তমান সরকারের আমলে আইনের শাসন নেই। যে দেশে আইনের শাসন নেই, সেই দেশের মানুষের মতো অসহায় আর কেউ নেই।

সিলেটের সময়: : ক্ষমতায় আসার ব্যাপারে আপনারা কতটা আশাবাদী?

শরীফ আহমদ লস্কর : দুঃশাসন থেকে মুক্তি পেতে জনগণ উন্মুখ হয়ে আছে। মানুষ পরিবর্তন চায়। অতীত ইতিহাস থেকে শিক্ষা নিয়ে তারা বিএনপিকে আবারও ক্ষমতায় দেখতে চায়। সুষ্ঠু নির্বাচন হলে আমরা জনগণের ভোটে আবারও ক্ষমতায় আসব। এ ব্যাপারে আমি আশাবাদী।

সর্বশেষ সংবাদ

পাঠক

Flag Counter