শনিবার, ২৪ নভে ২০১৮ ০৭:১১ ঘণ্টা

‘ঐক্যফ্রন্টে যাচ্ছি না, এটি ভিত্তিহীন’

‘ঐক্যফ্রন্টে যাচ্ছি না, এটি ভিত্তিহীন’

‘ঐক্যফ্রন্টে যাচ্ছি না, এটি ভিত্তিহীন’-এমন মন্তব্য করে পররাষ্ট্রমন্ত্রী প্রয়াত জাতীয় নেতা আব্দুস সামাদ আজাদের ছেলে আজিজুস সামাদ আজাদ ডন বললেন, ‘একটি মহল আমার জনপ্রিয়তায় ঈর্ষান্তিত হয়ে এমন অপপ্রচার চালাচ্ছে। জামায়াত যেভাবে স্বাধীনতা বিরোধী একটি দল, ঐক্যফ্রন্টেও নেতৃত্বদানকারী বৃহত্তম দলটিও তেমনি বঙ্গবন্ধুর আর্দশের বিরোধী একটি দল।’

শনিবার দুপুরে সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর পৌরশহরের সিএ মার্কেটস্থ তার বাসভবনের সামনে দলীয় নেতাকর্মীদের সঙ্গে মতবিনিময় সভায় বক্তব্য শেষে সাংবাদিকদের তিনি এসব কথা বলেন। আজিজুস সামাদ আজাদ ডন আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সুনামগঞ্জ -৩ (জগন্নাথপুর ও দক্ষিণ সুনামগঞ্জ) আসনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশিদের একজন।

দলীয় মনোনয়ন বঞ্চিত হলে, কোনো ব্যানারে নির্বাচন করবেন কিনা এমন প্রশ্ন করা হলে তিনি সুনির্দিষ্ট কোন জবাব না দিয়ে বলেন, ‘যদির কোনো উত্তর নেই। আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন এখনও চুড়ান্ত হয়নি। আমার বিশ্বাস জনপ্রিয়তার দিক দিয়ে বিবেচনা করা হলে আমাকেই মনোনয়ন দেওয়া হবে।’

উপজেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি পৌরমেয়র আলহাজ্ব আব্দুল মনাফের সভাপতিত্বে ও উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ন সম্পাদক সিরাজ উদ্দিন মাষ্টার, সাংগঠনিক সম্পাদক জয়দ্বীপ সুত্রধর বীরেন্দ্রের যৌথ পরিচালনায় অনুষ্ঠিত সভায় আজিজুস সামাদ ডন বলেন, যারা বিদেশে বসে বসে রাজনীতি পরিচালনার চেষ্টা করে, নতুন নতুন ইতিহাস তৈরীর চেষ্টা চালায়। এ ধরনের রাজনীতির বিপক্ষে আমি। এধরনের রাজনীতি করা আমার পক্ষে সম্ভব না। জামাত-শিবির যেরকম আমাদের স্বাধীনতার বিরূদ্ধে। ঠিক সেরকম বঙ্গবন্ধুর আর্দশের বিপক্ষের আছে ওই পক্ষ।

তিনি আরো বলেন, সুলতান মনসুর, মান্না ভাই আর রেজা কিবরিয়ার রাজনীতির সঙ্গে আমাদের মিলাবেন না। কারণ আমার বাবার রাজনীতি আর আমার রাজনীতি অন্যদের মতো নয়। কারন প্রগতিশীল রাজনীতির বাহিরে আমাদের পরিবারের কেউ নয়।

এ সময় উপজেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি জেলা পরিষদের সদস্য সৈয়দ সাব্বির আহমদ,ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল হাসিম, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক শহিদুল সালাম বকুল,সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান আঙ্গুর মিয়া, আওয়ামী লীগ নেতা নুরুল ইসলাম, তাজউদ্দিন আহমদ, সালাউদ্দিন, মিন্টু রঞ্জন ধর, সৈয়দ শেফুল আমিন, পৌর আওয়ামী লীগ নেতা পৌর কাউন্সিলর আবাব মিয়া, কাউন্সিলর সুহেল আহমদ, দ্বিপক গোপ, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগ সভাপতি হাবিবুর রহমান হাবিব, সাধারণ সম্পাদক মোতাহির আলী, পৌর স্বেচ্ছাসেবক লীগ সভাপতি ছালিক আহমদ পীর, সাধারণ সম্পাদক কবির মিয়া, উপজেলা যুবলীগ নেতা ফয়জুল ইসলাম, হাজী নজরুল ইসলাম, সাদেকুর রহমান সাদ, সেলিম আহমদ, আনোয়ার কোরেশী, রফিকুল ইসলাম, উপজেলা ছাত্রলীগ নেতা তৈয়বুর রহমান সিতু, মিটন দেব, শাহিন মিয়া সুমন, নাদিম শাহ, সাইফুর রহমান সোহাগ, সুজেল মিয়াসহ দলীয় নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন প্রমুখ।

প্রসঙ্গত, গত কয়েকদিন ধরে নির্বাচণী মাঠে গুঞ্জন চলছিল, এবারও আজিজুস সামাদ ডন দলীয় মনোনয়ন পাচ্ছেন না। এ আসনে গনমাধ্যমে বর্তমান সংসদ সদস্য অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রীর নাম প্রার্থী হিসেবে আওয়ামী লীগে মনোনয়ন চুড়ান্ত তালিকায় রয়েছে বলে খবর প্রকাশিত হয়েছে।

এরপর থেকে গুঞ্জণ শুরু হয় দলীয় মনোনয়ন বঞ্চিত হলে সাবেক অর্থমন্ত্রী মরহুমর এসএস কিব্বরিয়ার ছেলে রেজা কিব্বরিয়ার পথ ধরে জাতীয় ঐক্যেফ্রন্টের ব্যানারে নির্বাচনে অংশ নিতে পারেন সামাদপুত্র আজিজুস সামাদ ডন। ডন শিবিরের সমর্থরা দাবী করে আসছে নির্বাচন তারা করবেই।

সর্বশেষ সংবাদ

পাঠক

Flag Counter